কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

অধীর চৌধুরী কি বিজেপির পথে ! দিলীপ ঘোষের মন্তব্যে জল্পনা

Current India Features Politics

তিনি লোকসভায় কংগ্রেসে দলের নেতা । তবে বিজেপির বিরুদ্ধে যখন কংগ্রেস সহ সকল বিজেপি বিরোধী দলগুলিকে নিয়ে তৃণমূল লড়ার কথা ভাবে তখন বারবার বাংলায় কংগ্রেসের এই নেতা তথা লোকসভার দলনেতা অধীর চৌধুরী তৃণমূলকে আক্রমণ করেন আর এবার তাঁর ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তুলতে দেখা গেছে তৃণমূল দলকে । এর মাঝেই জল্পনা উঠলো , কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপির পথে অধীর চৌধুরী । মমতা ব্যানার্জি থেকে শুরু করে অভিষেক ব্যানার্জি বারবার বলেন , বাংলার প্রদেশ কংগ্রেস বিজেপির বিরুদ্ধে লড়াই দিতে পারছে না ।

এবার ভবানীপুর বিধানসভা উপনির্বাচন নিয়ে যখন উত্তাল রাজ্য রাজনীতি , ঠিক তখন সেই অধীর চৌধুরী সম্পর্কে জল্পনা বাড়ালেন বিজেপির সর্বভারতীয় সহ-সভাপতি দিলীপ ঘোষ । দিলীপ যে অধীর চৌধুরীর একমাত্র জায়গা ভারতীয় জনতা পার্টি তা তাঁর মন্তব্যে বুঝিয়ে দেন । ফলে দিলীপবাবুর এই মন্তব্য যদি সত্যি হয় এবং অধীরবাবুর যোগদান খবর রিয়েল হলে তা হবে রাজনীতিতে এক যুগান্তকারী ঘটনা ।

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

জানা গেছে , বহরমপুরে জঙ্গিপুর এবং সামশেরগঞ্জে দলের প্রার্থীর সমর্থনে প্রচার করতে আসেন দিলীপ ঘোষ আর সেখানে অধীর চৌধুরী সম্পর্কে এই মন্তব্য করেন তিনি । রাজ্য বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি বলেন , ” আমরা লড়াই করব । বিজেপি পুরো শক্তি দিয়ে লড়াই করছে । তবে অধীরবাবু ডুবন্ত নৌকা ছেড়ে যেখানে যেতে চাইছেন সেখানেও ফুটো । তাঁর একটা জায়গা বাকি তা হল ভারতীয় জনতা পার্টি । “

অর্থাত্‍ দিলীপ ঘোষ বুঝিয়ে দিলেন , অধীর চৌধুরী কংগ্রেসের সঙ্গে দূরত্ব তৈরি করলে তার রাজনৈতিক ক্ষেত্রে একমাত্র ভালো জায়গা বিজেপি । এই মন্তব্যে অধীরবাবুকে নিয়ে সকলের মধ্যে জল্পনা যে বাড়িয়ে দিলেন বিজেপি সাংসদ তা বলা যায় ।

বিশেষজ্ঞদের মতে , একসময় কংগ্রেসের ঘাঁটি ছিলো মুর্শিদাবাদ আর সেখানে নায়ক হিসেবে পরিচিত ছিলেন অধীর রঞ্জন চৌধুরী । কিন্তু বর্তমানে মুর্শিদাবাদ দূর অস্ত , গোটা রাজ্যেই কংগ্রেস মুখ থুবড়ে পড়েছে । নানা মহলে কংগ্রেসের ভিতর দ্বন্দ্ব দেখা গেছে । আর এই অবস্থায় প্রদেশ কংগ্রেসের সভাপতি অধীর রঞ্জন চৌধুরীর ভবিষ্যত্‍ নিয়ে শুরু হলো জল্পনা যা বাড়ালেন স্বয়ং দিলীপ ঘোষ । তাই গোটা পরিস্থিতি কোথায় গিয়ে শেষে দাঁড়ায় , সেদিকে তাকিয়ে রাজ্যবাসী ।