কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

amit shah

অমিত শাহের নাম করে ২০০ কোটি টাকার জালিয়াতি!

Current India Economy Features Politics

শুধু ফোনে কথা বলেই ২০০কোটি  টাকা হাতিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠল সুকেশ চন্দ্রশেখর নামে এক তোলাবাজের বিরুদ্ধে। তিহাড় জেলে থেকেই ফোনে কথা বলে ছক কষে  এক মহিলার সঙ্গে প্রতারণা করে ২০০ কোটি টাকা মূল্যের সম্পত্তি হাতিয়ে নেয় মহিলার থেকে।

একটি নামকরা ওষুধ প্রস্তুতকারক সংস্থার প্রাক্তন মালিক শিবিন্দর সিংহের স্ত্রীর থেকে তাঁর স্বামীর জামিন পাইয়ে দেওয়ার নাম করে টাকা তোলে চন্দ্রশেখর।সূত্র মারফত জানা গেছে যে  শিবিন্দর ও তাঁর ভাই মালবিন্দর দুর্নীতির অভিযোগে ২০১৯ সাল থেকে শ্রীঘরে।  বিভিন্ন মন্ত্রীদের নাম নিয়ে কথা বলত চন্দ্রশেখর ।বিভিন্ন দপ্তরের নাম করে সে টাকা তুলত। প্রধানমন্ত্রীর দফতর থেকে শুরু করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক ।আবার আইন মন্ত্রক  দপ্তর থেকে ফোন করেছে বলে নানা পরিচয় দিত চন্দ্রশেখর।

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

 গত ১১ মাস ধরে ১০টি কিস্তিতে চন্দ্রশেখরকে ২০০ কোটি টাকা দিয়েছেন বলে শিবিন্দর সিংহের স্ত্রী অদিতি জানিয়েছেন।অদিতি দেবীকে চন্দ্রশেখর জানায় যে বিজেপির দলীয় তহবিলে টাকা দিতে হবে। অমিত শাহ, রবিশঙ্কর প্রসাদের মতো হেবি ওয়েট কেন্দ্রীয় মন্ত্রীদের নাম করে সে টাকা আদায় করত অদিতি দেবীর কাছ থেকে।  এই তোলাবাজি ও বড়সড় জালিয়াতিতে চন্দ্রশেখরের সঙ্গে ছিল অনেকে তাকে সাহায‍্য করার জন‍্য।

অদিতি পুলিশকর্তাদের  জানিয়েছেন যে ১১ মাস আগে এক মহিলা তাঁকে প্রথম  ফোন করে আইনসচিব অনুপ কুমার তাঁর সঙ্গে কথা বলতে চান এমনই বলেছিলেন এরপর একে একে এমন ফোন প্রায়ই আসতে শুরু করে।এর পর অনুপ কুমার পরিচয় দিয়ে এক ব‍্যক্তি  জানায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ  অদিতি দেবীর সঙ্গে ফোনে কথা বলতে চান । ফোন আসে তাঁর কাছে। অদিতি দেবী এও পুলিশকে জানিয়েছেন ফোনের ট্রু-কলার অ্যাপে তিনি দেখেন ফোন এসেছে প্রধানমন্ত্রীর দফতরের উপদেষ্টা পি কে মিশ্রর কাছ থেকে।

কেন্দ্রের উপমহলের কর্তাদের নাম করে ফোন আসার পরে বিজেপির কেন্দ্রীয় তহবিলের জন্য ২০ কোটি টাকা চায় অনুপ কুমার। এমন অনেক ভাবে ও ভয় দেখিয়ে টাকা আদায় করা হয় তার থেকে।  এক সময়ে অদিতি দেবীর সন্দেহ হওয়ায়  তিনি পুলিশের কাছে যান ও অভিযোগ জানায়।দ্রুত পুলিশে বিষয়টি খতিয়ে দেখে জানতে পারে একটি বড়সড় জালিয়াতি কেস।

অনুসন্ধান করে পুলিশ জানতে পারে অদিতির থেকে নেওয়া ২০০কোটি টাকায় চেন্নাইয়ে সমুদ্রের ধারে একটি বিলাসবহুল বাংলো কিনেছিল  চন্দ্রশেখর ও তার সঙ্গী অভেনেত্রী লিনা ম্যারি পল। সেখান থেকে বিদেশী ব্র্যান্ডেরদামী গড়ি, ব্যাগ, জুতো, পোশাক উদ্ধার করে পুলিশ।  অনুসন্ধানে নেমে দিল্লি পুলিশের হাতে নানা তথ‍্য উঠে আসে এই প্রতারণা চক্রের বিরুদ্ধে সারা দেশে ২৩টি প্রতারণার মামলা ঝুলে রয়েছে