কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

এবার বামপন্থীদের মুখেও শোনা গেল তৃণমূলের ওপর হামলার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ!

Current India Features Politics

তেল আর জলের মতোই সম্পর্ক দুই দলের, যা কখনো মিশ খাবে কল্পনাই করা যায়না। কিন্তু ত্রিপুরায় কার্যত সেটাই ঘটছে। খুব ধীরে হলেও বাম – তৃণমূলের আত্মিক সম্পর্কের সুতো বাঁধা পড়ে যাচ্ছে বিজেপি বিরোধী সংঘাতের প্রশ্নে।
বিগক কয়েক দিনে দুই দলের কর্মীরাই বিজেপি দ্বারা আক্রান্ত। তৃণমূল কংগ্রেস যেমন এর বিরুদ্ধে আওয়াজ তুলে দেখিয়ে দিয়েছে — মানবিকতার বিচারে তাদের কাছে সিপিএমও সমান। এবার বামপন্থীদের মুখেও শোনা গেল তৃণমূলের ওপর হামলার বিরুদ্ধে প্রতিবাদ।

ত্রিপুরায় অভিষেক ব্যানার্জীর সভা হতে না দেওয়ার এবং ত়ৃণমূল কর্মীদের ওপর আক্রমণের তীব্র নিন্দা করেছেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী মানিক সরকার

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

সংবাদ মাধ্যমর ওপর বিজেপি হামলার বিরুদ্ধেও সোচ্চার হলেন তিনি। প্রসঙ্গত বিজেপি বিক্ষোভ মিছিলের নামে কার্যত বর্বরোচিত আক্রমণ ও ভাঙচুর লুঠতরাজ চালায়। ৪৪টি পার্টি অফিসে ভাঙচুর ,২৭টি পার্টি অফিসে আগুন লাগিয়েছিল বিজেপি ক্যাডাররা।
বেশ কয়েকটি সংবাদ মাধ্যমও হামলার শিকার হয়। যার মধ্যে ডেলি দেশের কথা, প্রতিবাদী কলম,  পিবি নিউজ রয়েছে ।এই সংবাদপত্র মাধ্যমের ওপর হিংসাত্মক হামলারও নিন্দা করেন প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী তথা বামপন্থী নেতা মানিক সরকার ।

এপ্রসঙ্গে রাষ্ট্রপতিকে চিঠি দিলেও এখনও কোনো উত্তর আসেনি,  তবে সিপিএমের সাধারণ সম্পাদক সীতারাম ইয়েচুরি বলেছেন,”রাষ্ট্রপতি আমাদের সময় দেবেন আশা করছি। তাহলে আমরা গিয়ে আমাদের অভিযোগ জানাতে পারবো”।


এদিকে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে
ত্রিপুরার বিস্তারিত ঘটনার কথা লিখে চিঠি পাঠালেও,  সে চিঠির কোনোরকম প্রাপ্তি স্বীকার পর্যন্ত আসেনি বলেই জানিয়েছেন সীতারাম ইয়েচুরি।

তবে এসব ঘটনায় বিজেপি বিরোধী আবহাওয়া যে ক্রমশ জোট বাঁধছে ,তাতে আগামী বিধানসভায় তাদের আসন টলোমলো,  এমনটা অনুমান করতেই পারেন রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা।