কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

কলকাতা টু দিল্লী মাত্র ২ ঘন্টায়! কীভাবে

Current India Features International Technology

দেড় হাজার কিলোমিটার পথ সফর করা যাবে মাত্র ২ ঘন্টায়! কীকরে সম্ভব? উত্তর হলো ট্রেনেই, তবে এক বিশেষ প্রযুক্তি হাইপারলুপের সাহায্যে।
ভারতেই এই হাইপারলুপ ট্রেন চালানোর পরিকাঠামো তৈরি রয়েছে বলেই জানিয়েছে নীতি আয়োগ। যার সাহায্যে দিল্লী টু কলকাতা পৌঁছনো যেতে পারে মাত্র ২ ঘন্টায়!


হাইপারলুপ কী?
পরিবহনমাধ্যমে সবচাইতে দ্রুতগতিতে চলার প্রযুক্তি হল এই হাইপারলুপ। এলন মাস্ক সর্বপ্রথম এই প্রযুক্তি ব্যবহারের প্রস্তাব দেন। আমেরিকার লাস ভেগাসে ২০২০ সালে প্রথম ৫০০ মিটার ট্র্যাকে এই ট্রেন পরীক্ষিত ভাবে চালানো হয়। ওই ট্রেনটি প্রতি ঘন্টায় ৩৮৭ কিলোমিটার বেগে চালানো হয়েছিল। যদিও হাইপারলুপ ট্রেনের সর্বাধিক গতিবেগ ঘন্টায় ১০৮০ কিলোমিটার।

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304


নীতি আয়োগের পক্ষ থেকে ভি কে সরস্বত জানিয়েছেন, ভারতেও এই ট্রেন চালানোর প্রযুক্তি আনা সম্ভব। মহারাষ্ট্রের মুম্বই-পুনে রুটে এই প্রযুক্তি ব্যবহারের পারমিটও রয়েছে।

তবে পরিকাঠামো প্রস্তুত থাকলেও দেশজ পদ্ধতিতে ভারতে এটি বাস্তবায়ন সময়সাপেক্ষ, তাই বিদেশি সংস্থাগুলোকে আহ্বান জানানোর প্রস্তাব রেখেছেন তিনি। আপাতত এর ব্যবসায়িক লাভজনক দিক এবং যাত্রীদের সুরক্ষা দুটি বিষয়কেই খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এর জন্য নির্দিষ্ট কমিটিও গঠন করা হয়েছে।


ভারতে বুলেট ট্রেন চালানোর প্রস্তাব এর আগেও উঠেছিল। এবার উঠল হাইপারলুপ ট্রেনের সম্ভাবনার প্রসঙ্গ। নীতি আয়োগের এই ঘোষণার ফলে জানা যাচ্ছে বিদেশি বিনিয়োগকারী সংস্থাগুলির সাথে চুক্তি হলে এবং সমস্তদিক ঠিক থাকলে অদূর ভবিষ্যতে ভারতেই হাইপারলুপ ট্রেন চালু হয়ে যেতে পারে। একটি টিউবের মধ্যে দিয়ে অবিশ্বাস্য দ্রুতগতিতে ট্রেন চালানোর স্বপ্ন বাস্তবায়িত হতে খুব বেশি দেরি নেই।