আমাদের Telegram এ ফলো করুন সবার আগে সর্বশেষ আপডেট পান Click Here

Google News এ ফলো করুন Click Here

new born baby

কলেজের টয়লেটে শিশুর কান্না শুনেই ছুটে গেল ছাত্রীরা

Features International

বাংলাদেশের খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজে আজ ঘটল চমকপ্রদ এক ঘটনা। ছাত্রীদের কমন রুমের টয়লেট থেকে সন্ধান মিলল এক নবজাতক শিশুর।
শিশুটির অভিভাবক কে তা সম্পূর্ণ অজানা। কীভাবেই বা কলেজের ভেতরে প্রবেশ করে এই নবজাকটিকে রেখে যাওয়া সম্ভব হল বোঝা যাচ্ছেনা সেসব কিছুই। বেলা ১১টা নাগাদ ছাত্রীদের কাছ থেকেই খবর পেয়ে সদ্যজাত শিশুটিকে উদ্ধার করে কলেজ কর্তৃপক্ষ।
কলেজের অধ্যক্ষ রফিক উদ্দিন জানান “২০২১ শিক্ষাবর্ষের জন্য অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে বেশ কিছু শিক্ষার্থী এসেছিল । টয়লেট থেকে শিশুর কান্না শুনে ছাত্রীরাই এসে খবর দেয়, এরপরই আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিই”।

পিতৃতান্ত্রিক এই সমাজব্যবস্থায় শিশুর জন্ম দিয়ে মায়ের পালাতে বাধ্য হওয়ার এমন ঘটনা প্রায়শই ঘটে থাকে। অথবা থাকতে পারে অর্থনৈতিক কারণ। এক্ষেত্রে ঠিক কোনটা ঘটেছে সেটা ধরা না গেলেও, অদ্ভুত এক মানবিক কৌশল এক্ষেত্রে অবলম্বদ করা হয়েছে।  ছাত্রীদের কলেজে আসার ওই বিশেষ দিনটিকেই কেন বেছে নিলেন পরিত্যাগকারী মা? ( অথবা মা-বাবা! ) যাতে শিশুটি সবার নজরে আসে, সেই কারণেই কি?
অধ্যক্ষের বক্তব্য অনুযায়ী, উদ্ধারের পর শিশুটিকে সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তারপরই আইনি প্রক্রিয়ার দিকে যাওয়া হবে। শিশুটিকে যাতে কেউ দত্তক নিতে পারে সে ব্যবস্থাও করা হবে। সদ্যোজাতর মা যে আড়াল থেকে সবটাই লক্ষ্য রেখে চলেছেন, এমনটা আমরা অনুমান করে নিতেই পারি। 

বাংলাদেশের খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজে আজ ঘটল চমকপ্রদ এক ঘটনা। ছাত্রীদের কমন রুমের টয়লেট থেকে সন্ধান মিলল এক নবজাতক শিশুর।
শিশুটির অভিভাবক কে তা সম্পূর্ণ অজানা। কীভাবেই বা কলেজের ভেতরে প্রবেশ করে এই নবজাকটিকে রেখে যাওয়া সম্ভব হল বোঝা যাচ্ছেনা সেসব কিছুই। বেলা ১১টা নাগাদ ছাত্রীদের কাছ থেকেই খবর পেয়ে সদ্যজাত শিশুটিকে উদ্ধার করে কলেজ কর্তৃপক্ষ।
কলেজের অধ্যক্ষ রফিক উদ্দিন জানান “২০২১ শিক্ষাবর্ষের জন্য অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে বেশ কিছু শিক্ষার্থী এসেছিল । টয়লেট থেকে শিশুর কান্না শুনে ছাত্রীরাই এসে খবর দেয়, এরপরই আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিই”।

পিতৃতান্ত্রিক এই সমাজব্যবস্থায় শিশুর জন্ম দিয়ে মায়ের পালাতে বাধ্য হওয়ার এমন ঘটনা প্রায়শই ঘটে থাকে। অথবা থাকতে পারে অর্থনৈতিক কারণ। এক্ষেত্রে ঠিক কোনটা ঘটেছে সেটা ধরা না গেলেও, অদ্ভুত এক মানবিক কৌশল এক্ষেত্রে অবলম্বদ করা হয়েছে।  ছাত্রীদের কলেজে আসার ওই বিশেষ দিনটিকেই কেন বেছে নিলেন পরিত্যাগকারী মা? ( অথবা মা-বাবা! ) যাতে শিশুটি সবার নজরে আসে, সেই কারণেই কি?
অধ্যক্ষের বক্তব্য অনুযায়ী, উদ্ধারের পর শিশুটিকে সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তারপরই আইনি প্রক্রিয়ার দিকে যাওয়া হবে। শিশুটিকে যাতে কেউ দত্তক নিতে পারে সে ব্যবস্থাও করা হবে। সদ্যোজাতর মা যে আড়াল থেকে সবটাই লক্ষ্য রেখে চলেছেন, এমনটা আমরা অনুমান করে নিতেই পারি। 

বাংলাদেশের খাগড়াছড়ি সরকারি কলেজে আজ ঘটল চমকপ্রদ এক ঘটনা। ছাত্রীদের কমন রুমের টয়লেট থেকে সন্ধান মিলল এক নবজাতক শিশুর।
শিশুটির অভিভাবক কে তা সম্পূর্ণ অজানা। কীভাবেই বা কলেজের ভেতরে প্রবেশ করে এই নবজাকটিকে রেখে যাওয়া সম্ভব হল বোঝা যাচ্ছেনা সেসব কিছুই। বেলা ১১টা নাগাদ ছাত্রীদের কাছ থেকেই খবর পেয়ে সদ্যজাত শিশুটিকে উদ্ধার করে কলেজ কর্তৃপক্ষ।
কলেজের অধ্যক্ষ রফিক উদ্দিন জানান “২০২১ শিক্ষাবর্ষের জন্য অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে বেশ কিছু শিক্ষার্থী এসেছিল । টয়লেট থেকে শিশুর কান্না শুনে ছাত্রীরাই এসে খবর দেয়, এরপরই আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিই”।

পিতৃতান্ত্রিক এই সমাজব্যবস্থায় শিশুর জন্ম দিয়ে মায়ের পালাতে বাধ্য হওয়ার এমন ঘটনা প্রায়শই ঘটে থাকে। অথবা থাকতে পারে অর্থনৈতিক কারণ। এক্ষেত্রে ঠিক কোনটা ঘটেছে সেটা ধরা না গেলেও, অদ্ভুত এক মানবিক কৌশল এক্ষেত্রে অবলম্বদ করা হয়েছে।  ছাত্রীদের কলেজে আসার ওই বিশেষ দিনটিকেই কেন বেছে নিলেন পরিত্যাগকারী মা? ( অথবা মা-বাবা! ) যাতে শিশুটি সবার নজরে আসে, সেই কারণেই কি?
অধ্যক্ষের বক্তব্য অনুযায়ী, উদ্ধারের পর শিশুটিকে সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। তারপরই আইনি প্রক্রিয়ার দিকে যাওয়া হবে। শিশুটিকে যাতে কেউ দত্তক নিতে পারে সে ব্যবস্থাও করা হবে। সদ্যোজাতর মা যে আড়াল থেকে সবটাই লক্ষ্য রেখে চলেছেন, এমনটা আমরা অনুমান করে নিতেই পারি।