VoiceBharat News SUVENDU ADHIKARI REMOVED

নিজে দল ছেড়েছিলেন। যোগ দিয়েছিলেন বিজেপিতে। সেই তিনিই বিজেপি ছেড়ে যাওয়া দলনেতাদের পেছনে উঠে পড়ে লেগেছেন। দলত্যাগ বিরোধী আইন শক্তপোক্ত করতে সদা সচেষ্ট শুভেন্দু অধিকারী। দল ছেড়ে কেউ পালালেই খপাৎ করে তাকে ধরে বলছেন,” পদত্যাগ পত্র কই?” এবার শুভেন্দুকেই উল্টে চিমটি কাটলেন সদ্য বিজেপি দলত্যাগী নেতা কৃষ্ণ কল্যাণী।

মাস পয়লায় শুক্রবারেই বিজেপি ছেড়েছেন রায়গঞ্জের বিধায়ক শ্রী কৃষ্ণ কল্যাণী। সাংসদ দেবশ্রী চৌধুরীর সাথে বাদানুবাদের ফলেই এই দলত্যাগ।
শুভেন্দু অধিকারীও পেছনে লেগে গেছেন সাথে সাথেই। চেয়ে বসেছেন , “দল ছাড়লেন যে! পদত্যাগ পত্র কোথায়?”

VoiceBharat News 1633195735 krishna


পাল্টা দিলেন কৃষ্ণ কল্যাণী। তিনি শুভেন্দুকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ” ওনার বাড়ির ঝামেলা তো অনেক পুরোনো। নিজের বাড়িতে যে দুজন সাংসদ রয়েছেন, আগে তাদের ঝামেলা মিটিয়ে নিন, তারপর না হয় আমার কথা চিন্তা করবেন”।


উল্লেখ্য, শুভেন্দুর বাড়িতেই দুজন তৃণমূল সাংসদ রয়েছেন — একজন শুভেন্দুর বাবা শিশির অধিকারী এবং অপরজন শুভেন্দুর ভাই দিব্যেন্দু অধিকারী। যথারীতি এঁরা কেউই এখনও পদত্যাগ পত্র দেননি। তৃণমূল তা নিয়ে লোকসভা স্পিকারের কাছে অভিযোগও জানিয়েছে। বিধায়ক কৃষ্ণ কল্যাণী তাঁদের লক্ষ্য করেই হাটি হাঁড়ি ভেঙে দিলেন।


ওই একই দলত্যাগ বিরোধী আইনে শিশির ও দিব্যেন্দু অধিকারীর পদত্যাগ দাবি করেছে তৃণমূল। শুভেন্দু নিজের ঘরে এখনও সে আইন প্রয়োগ করতে পারেননি , যেহেতু তারা তৃণমূল সাংসদ তাই! অথচ সেই শুভেন্দুই বিজেপি ছেড়ে পালানো নেতাদের পদত্যাগ চাই বলে তুলকালাম শুরু করেছেন! প্রশ্ন রাজনৈতিক মহলের।


প্রসঙ্গত, নিজের এক ট্যুইটে কাল বন্যা পরিস্থিতির বিতর্কে সূত্রে শুভেন্দু অধিকারীকে ‘কুলাঙ্গার, বেইমান, মেরুদন্ডহীন’ বলেছেন তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক কুনাল ঘোষ।
কৃষ্ণ কল্যাণী উস্কে দেওয়ায় আরও একটা বিতর্ক তৈরি হল আজ। অভিযোগে শরবিদ্ধ শুভেন্দু অধিকারী নিজের পাতা ফাঁদেই পা দিয়ে ফেলেছেন কখন! তিনি নিজেই সেটা বুঝতে পারেননি।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com