কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

জয় আর বিজেপিতে নেই, এবার কি তবে তৃণমূলের ‘জয়’ !

Current India Entertainment Features Politics

দেরিতে হলেও অনুভব করেছেন তিনি একজন অভিনেতা। দল ছাড়ার আগে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, “আমি একজন নায়ক। আমি কাউকে তেল দিতে পারবনা। আমি কি পলিটিক্সের পেছনে দৌড়ব? পলিটিক্স আমার পেছনে দৌড়বে। তবু বিজেপিকে ভালোবেসে অনেক করেছি”।


এভাবেই স্পষ্টত নিজের মনোভঙ্গী প্রকাশ করে অভিনেতা জয় ব্যানার্জী জানিয়েছেন — বিজেপিকে অনেক ভালোবেসেছেন। এবার মানুষকে ভালোবাসবেন। কেননা জয়ের মতে মানুষের সমর্থন সবচেয়ে বড় কাম্য।

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

তৃণমূলে যোগ দিচ্ছেন কি জয়?
এই প্রশ্নের উত্তরেই জয় ব্যানার্জী বলেছেন, “আমি সবসময়ই মানুষের কাছাকাছি থাকতে চাই। আগে যখন অভিনয় করতাম, তখনও তা মানুষের জন্যই। মানুষ যে দলের সাথে রয়েছেন সেই দল ডাকলে আমি নিশ্চয়ই যাব”। অর্থাৎ তৃণমূলে যোগ দেওয়ার সম্ভাবনাকে জিইয়ে রেখেই বিজেপি ছাড়ার কথা ঘোষণা করেছেন জয়। এখন শুধু তৃণমূলের ডাকার অপেক্ষা।


বিজেপির প্রতি জমে থাকা ক্ষোভও এদিন তাঁর কথায় প্রকাশ হয়ে পড়েছে। তিনি দুঃখের সঙ্গে জানিয়েছেন, “আমি দ্বিতীয়বার যখন পার্টি অফিস থেকে হসপিটালে ভর্তি হই তখন কেউ আমার খোঁজ পর্যন্ত নেয়নি। আমি যখন আইসিইউতে মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছি সেই সময়েও আমার বাড়ির সদস্যরা কৈলাশ বিজয়বর্গীয়কে ফোন করেছিলেন। তিনি সেই সময় বাগনানে মহিলা পরিবেষ্টিত হয়ে ঢোল বাজাচ্ছিলেন। কর্মীদের খোঁজ নেয়না যে দল তারা হারবেনা তো কি হবে!”


কর্মীদের অবহেলা করার অভিযোগই বিজেপির দিকে ছুঁড়ে দিয়েছেন জয়।


প্রসঙ্গত, দীপাবলির শুভেচ্ছা জানিয়ে খোদ নরেন্দ্র মোদীকে চিঠি লিখেই তিনি দল ছাড়ার অনুমতি চেয়েছেন। ওই চিঠিতে তাঁর দলের প্রতি যাবতীয় ক্ষোভ এবং অভিমান সবিস্তারে লিখে জানিয়েছেন। বারবার অ্যাপয়েন্টমেন্ট চেয়েও প্রধানমন্ত্রীর সাথে দেখা করতে পারেননি টলিউডের এই অভিনেতা। অসুস্থতা সত্ত্বেও পাননি কোনও মেডিকেল ফান্ড। এই সমস্ত কথাই চিঠিতে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রীর উদ্দেশ্যে লিখেছেন, “২০১৭ সালে আপনি আমাকে ন্যাশনাল এক্সিকিউটিভ মেম্বার করেছিলেন। কিন্তু নতুন টিম আমাকে ব্রাত্য করে এই পোস্ট রাজীব বন্দ্যোপাধ্যায়কে দিয়ে দেয়, যিনি বিজেপির গালে থাপ্পড় মেরে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন…।”


বাংলার অভিনেতা তথা বিজেপি নেতা জয় ব্যানার্জী তাঁর বর্ণিত চিঠিতে প্রধানমন্ত্রীকে বাংলার বিজেপির চেহারাটা বেশ খোলতাই করেই দেখিয়েছেন, যা নরেন্দ্র মোদীর বিবেচ্য বিষয় হবে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল। অবশেষে জয়ও যে রাজীবের পথেই হাঁটা দেওয়ার জন্য প্রস্তুত, সেই ইঙ্গিতও করে রাখলেন।