আমাদের Telegram এ ফলো করুন সবার আগে সর্বশেষ আপডেট পান Click Here

Google News এ ফলো করুন Click Here

তৃণমূলে ফিরলেন সব্যসাচী দত্ত আর তাতেই ক্ষোভের সুর সৌগত-র গলায়

Current India Features Politics

দেবীপক্ষ শুরু হতে পুরানো দলে ফিরে এলেন সব্যসাচী দত্ত আর তা নিয়ে তৃণমূলের অন্দরে শুরু হলো চাপানউতোর। কেউ তা নিয়ে সোচ্চার প্রকাশ্যে, কেউ বা ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ঘনিষ্ঠদের কাছে। তৃণমূলের একটা বড় অংশ যেন মন থেকে মেনে নিতে পারছে না সব্যসাচীর ফেরার বিষয়টি ।

সব্যসাচীর জন্য তৃণমূলকে একটা সময় সমালোচনার মুখে পড়তে হত কারণ তাঁর বিরুদ্ধে সল্টলেক, রাজারহাট ও নিউটাউন এলাকায় সিন্ডিকেট চালানোর নানা অভিযোগ উঠতো । যদিও পরে দলের তরফে তা নিয়ন্ত্রিত হয় অনেকটাই। আর সেই সিন্ডিকেট চক্রকে থামানোর সিদ্ধান্ত সব্যসাচী মেনে নিতে পারেননি বলেই পা বাড়িয়েছিলেন বিজেপিতে এমনটাই অনেকের মত। ফলে সব্যসাচীর প্রত্যাবর্তনে অনেকেই মনে করছেন সব্যসাচীকে দল ঠিক মতো নিয়ন্ত্রণ করতে না পারলে ফের সিন্ডিকেট মাথা তুলবে সল্টলেক ও নিউটাউন এলাকায়।

দলের ভিতরে ও বাইরে এই ক্ষোভের কথা আঁচ করেই এদিন তাকে নিয়ে মুখ খুলেছেন দমদমের তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়। তিনি জানান, সব্যসাচীকে দলে ফেরানোর সিদ্ধান্ত দলের কর্মীদের মনোবলে ধাক্কা দেবে বলা যায়। এরাই দলের কঠিন সময়ে দল ছেড়ে যায় এবং দল ও দলনেত্রীকে উদ্দেশ্য করে কটূ কথা বলে গিয়েছে। এখন তাঁরাই যদি দলে ফিরে আসে তাহলে কর্মীরাই বা কেন জীবন দিয়ে দল করবেন! সৌগত রায়ের এই মত উঠে এলেও ক্ষোভ যে ছড়িয়েছে সেটা সুজিত বসুকে দেখলেই বোঝা যায়। তিনি বিষয়টি নিয়ে ঘনিষ্ঠমহলে অসন্তোষ জানিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। সুজিতের বিরুদ্ধেই বিধাননগরে বিজেপির প্রার্থী হিসাবে দাঁড়ায় সব্যসাচী। শুধু একুশের নির্বাচন নয়, সব্যসাচী দত্ত দীর্ঘদিন ধরে সুজিতের রাজনৈতিক কেরিয়ার যে ক্ষতি করতে চেয়েছেন তা বলাবাহুল্য । এখন দেখার, আগামী দিনে এই দুই মহারথীর সম্পর্ক ঠিক কোথায় দাঁড়ায় আর সব্যসাচীকে ঘিরে তৃণমূলের অন্দরে আরও কত ক্ষোভ হয়।