কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

তৃণমূলে বাবুল! বিশ্বাস করছেননা রূপা গাঙ্গুলী: দিবাস্বপ্নে গেরুয়া বাবুলকেই দেখছেন

Current India Features Politics

রাতারাতি নয়, একেবারে দিনে দুপুরে দল বদলে ফেললেন বাবুল। বঙ্গবাসী চাক্ষুষ দেখল–‘ছিল পদ্ম, হয়ে গেল জোড়াফুল’। ওদিকে ভরসন্ধেবেলা হঠাৎ জেগে উঠে বিজেপির অভিজ্ঞ নেত্রী রূপা গাঙ্গুলী বললেন, এটা নির্ঘাত ভুয়ো ছবি!

আসলে শনিবার দুপুরের পর থেকেই ‘দিকে দিকে সেই বার্তা রটি গেল ক্রমে’..বাবুল সুপ্রিয় হাত মেলাচ্ছেন অভিষেকের দুই হাতে। অন্তর্জালে  ছবিও ছড়িয়ে গেছে সঙ্গে সঙ্গেই। সেই ছবি নিয়ে বিজেপি শিবিরে যখন তোলপাড়, বিজেপি নেত্রী রূপা গাঙ্গুলী  যেন আকাশ থেকে পড়লেন। আচমকা বিদ্যুৎ ঝলকের মতো ট্যুইট করে বসলেন -“এটা নিশ্চয়ই ভূয়ো ছবি। বিজেপি সদস্যদের মধ্যে ভ্রান্তি ছড়াবার জন্য কেউ এটা করেছে”।

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

যদিও এই ট্যুইট তিনি নিজে না করে, আইটি সেলের নির্বাচিত কেউও ভুলবশত করে থাকতে পারে। সেটা নিয়ে রাজনৈতিক মহলের কেউ কেউ ফিসফিস করে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন।
সেটা দোষেরও কিছু নয়, কেননা শনিবার দুপুরের আগে পর্যন্ত বিজেপি দলের কেউ কল্পনাও করতে পারেননি, রাজনীতি ছেড়ে দিতে চাওয়া বাবুল আচমকা এমন একটা সিদ্ধান্ত নেবেন।


তাই হয়তো বাবুল সুপ্রিয়র দলবদলের সংবাদ এবং ছবি দেখেও ব্যাপারটা ঠিক হজম করতে পারেননি অনেকেই। তবে এই ঘটনায় দিলীপ ঘোষ কার্যত নীরব, এবং শমীক ভট্টাচার্য বাবুলকে রাজনৈতিক আদর্শচ্যুত বলে কটাক্ষ করলেও,  সবাইকে ছাপিয়ে গেছেন রূপা গাঙ্গুলী।

এই নিয়ে নেটপাড়ায় শুরু হল হাসাহাসি। রূপাদেবীর ট্যুইটের বিপরীতে একাধিক কমেন্টে, কেউ লিখলেন ‘চশমা পরে আসুন’!
কেউ আবার বাবুল সুপ্রিয়র সাংবাদিক বৈঠকের লিঙ্কই সরাসরি পোস্ট করে বসেন।

সব মিলিয়ে শনিবার সারা সন্ধে একজন ব্যক্তি বাবুল সুপ্রিয়ই ছেয়ে রইলেন নেটপাড়ার আকাশে বাতাসে।  আর ‘এমন বাদল দিনে’ ঝিরঝিরে বৃষ্টিতে ঝালমুড়ির যোগান দিলেন বিজেপি নেত্রী রূপা গাঙ্গুলী তাঁর ট্যুইটের মাধ্যমে।