আমাদের Telegram এ ফলো করুন সবার আগে সর্বশেষ আপডেট পান Click Here

Google News এ ফলো করুন Click Here

ত্রিপুরায় হচ্ছে না অভিষেক ব্যানার্জির পদযাত্রা , ক্ষুব্ধ তৃণমূল

Current India Features Politics

ত্রিপুরায় আর হচ্ছে না অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের পদযাত্রা আর তাতেই তেলে বেগুনে জ্বলে উঠলো তৃণমূল । ফলে বর্তমানে ত্রিপুরার রাজনীতিতে এই খবর যে উত্তাপ বাড়াবে তা অনস্বীকার্য ।

অভিষেক ব্যানার্জি নাম বাংলার রাজনীতিতে বর্তমানে যে বিশাল চর্চার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে তা বলা যায় । কখনো স্টেজ থেকে শুভেন্দুকে হুঙ্কার দেওয়া হোক তো কখনো বা হাতজোড় করে মানুষের থেকে আশীর্বাদ চাওয়া : সবেতেই কামাল অভিষেক । সেই অভিষেক ব্যানার্জির ত্রিপুরায় কর্মসূচি ঘিরেই এবার তপ্ত হলো রাজনীতি ।

বাংলায় বিপুলমাত্রায় ক্ষমতায় আসার পর তৃণমূলের ত্রিপুরা জয়ের লক্ষ্যে ত্রিপুরা অভিযানের পর থেকে শুরু হয় দ্বন্দ্ব । এই সময় তৃণমূলের দেবাংশু ভট্টাচার্য , সুদীপ রাহাদের মতো নেতাদের মার খাওয়ার ঘটনায় অভিষেক ব্যানার্জী থেকে মহুয়া মৈত্র সকলে প্রতিবাদ দেখান । এরপর অভিষেককে ইডি অফিস থেকে দিল্লিতে ডাক পাঠানোয় তৃণমূল বলে , ত্রিপুরায় অভিষেককে ভয় পেয়ে বিজেপি এসব করছে । পরে অভিষেক ইডি অফিস থেকে বেরিয়ে হুঙ্কার দেন , বিজেপিকে তিনি হারিয়ে ছাড়বেন । এরপর বাঁধে বিতর্ক । একাধিকবার ত্রিপুরায় পদযাত্রার অনুমতি চাওয়া হলে ত্রিপুরা পুলিশ তা খারিজ করে । কখনো সময়ে অনুমতি না চাওয়া তো কখনো অন্য কোনো কারণ দেখিয়ে সেখানকার পুলিশ অভিষেকের পদযাত্রা আটকায় । এরপর পরিস্থিতি আরো জটিল হয় ।

এর মাঝে সূত্রের খবর , ৪ নভেম্বর পর্যন্ত ত্রিপুরায় মিছিল বন্ধ রাখার ঘোষণা হয়েছে । এ বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুর প্রতিক্রিয়া জানতে চাওয়া হয়ে তিনি বলেন , ” কোভিডের মধ্যে যখন আমরা ত্রিপুরায় ছিলাম , তখন বিজেপির তরফ থেকে হাজার খানেক লোকের বড় পদযাত্রা বের হয় । ত্রিপুরায় বিপ্লব দেবের বিজেপি সরকার নিজেদের পদযাত্রাকে অনুমতি দিলেও যখন অভিষেক ব্যানার্জি পদযাত্রা করতে চাইছেন তখন অনুমতি দেওয়া হচ্ছে না । এর থেকে পরিষ্কার , অভিষেক ব্যানার্জিকে ওরা ভয় পেয়েছে তাই তাঁকে নানাভাবে দমানোর চেষ্টা চালানো হচ্ছে । নানাভাবে আমাদের বিরুদ্ধে অপপ্রচার করার চেষ্টা হচ্ছে । অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় বা তৃণমূলকে যতবার এমন করার চেষ্টা করবে , ততবার আমরা ত্রিপুরাকে পাখির চোখ করব । “