আমাদের Telegram এ ফলো করুন সবার আগে সর্বশেষ আপডেট পান Click Here

Google News এ ফলো করুন Click Here

থানায় জেরার মুখে পড়ে কেন হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েছিলেন কুনাল ঘোষ : জবাব দিলেন নিজেই

Current India Features Politics

গত মঙ্গলবার থানায় জিজ্ঞাসাবাদের পরেই অসুস্থ হয়ে পড়েন কুনাল ঘোষ। থানা থেকেই তাঁকে হসপিটালে স্থানান্তরিত করা হয়। বুধবার হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের দেওয়া খবর অনুযায়ী আগের তুলনায় এখন অনেকটাই সুস্থ হয়েছেন তিনি। বিরোধীরা জল্পনা করেছিলেন জেরার মুখাপেক্ষী হওয়ার কারণেই হঠাৎ ওই অসুস্থতা।


২৮ আগস্ট কুনাল ঘোষ সহ ৬ তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধা দেওয়ার অভিযোগে মামলা করেছিল ত্রিপুরা পুলিশ। সেই মামলা সম্পর্কিত জিজ্ঞাসাবাদের জন্যই মঙ্গলবার হাজিরা দিতে বলা হয়েছিল কুনাল ঘোষকে।  এক কথায় রাজি হয়ে এনসিসি থানায় ১১:৪৫ নাগাদ হাজির হয়েছিলেন কুনাল।

এরপর দীর্ঘ সময় ধরে জেরা করা হয় তাঁকে। জেরায় সম্পূর্ণ সহযোগিতা করেছেন জানিয়ে শংসাপত্রও দিয়েছে ত্রিপুরা পুলিশ।
কিন্তু জিজ্ঞাসাবাদের পর থানা থেকে বেরোবার মুখেই হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন কুনাল ঘোষ। সাথে সাথে থানা থেকে তাঁকে স্থানীয় আইএলএস হসপিটালে ভর্তি করা হয়।


ইতিমধ্যেই থানায় থাকাকালীন অসুস্থ হওয়াকে কেন্দ্র করে বিরোধী দলের জল ঘোলা শুরু হয়। অনেকের দাবি জেরার মুখোমুখি হওয়াতেই অসুস্থ হয়ে গেছিলেন কুনাল, যদিও এই কথাকে নস্যাৎ করে ট্যুইটারে ক্ষোভ উগরে দেন তিনি।


জেরার মুখোমুখি হয়ে নয়, দীর্ঘকালীন জিজ্ঞাসাবাদের পর ধকল সইতে না পেরেই এই অসুস্থতা একথা স্পষ্ট জানিয়ে পুলিশের দেওয়া শংসাপত্রটিও  কুনাল ঘোষের ট্যুইটারে মেলে ধরা হয়েছে।


থানার জেরা প্রসঙ্গে কুনাল জানিয়েছেন, “পুলিশের করা মামলা সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় সহ ৫ নেতাকে শুধু শুধুই হয়রান করা হচ্ছে। মামলার বিরুদ্ধে তৃণমূল কংগ্রেস হাইকোর্টেও আবেদন করেছে বলে জানিয়েছেন কুনাল”।


এই জেরায় পুলিশকে সহযোগিতাই করেছেন কুনাল ঘোষ। ডাক্তারের মতে হঠাৎ  সুগার বেড়ে যাওয়া  এবং ব্লাড প্রেশার নেমে যাওয়ার ফলেই অসুস্থতা। এর সঙ্গে পুলিশি জেরার কোনও সম্পর্ক নেই।