কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

দীঘার যাত্রীরা সংকটে : পাঁশকুড়ায় লাইনচ্যুত মালট্রেন

Current India Features

পুজোয় আজ যারা দীঘা যাচ্ছেন, ঝঞ্ঝাটের মুখে পড়লেন সেইসব ট্রেনযাত্রীরা। মহাসপ্তমীর এই সকালেই আচমকা ঘটে গেল বিপত্তি। পাঁশকুড়ার রেলপথে লাইনচ্যুত হল মালবাহী ট্রেন।
দীঘাগামী প্রচুর ট্রেন তাই বাতিল করা হয়েছে, অথবা সংকীর্ণ করা হয়েছে যাত্রাপথ।


পুজোয় বেড়াতে যাওয়ার হুজুগ বাঙালির দীর্ঘদিনের। তাছাড়া কোভিড চলাকালীন দীর্ঘদিন ঘরবন্দী দশায় থাকায় সকলেই প্রায় হাঁফিয়ে উঠেছেন। এবছর কিছুটা রাশ আলগা হওয়ায় স্বাভাবিক ভাবেই পুজোর ছুটিতে বেড়াতে বেরিয়ে পড়েছেন অনেকে।

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304


বাঙালীর কাছে পিঠে চট করে বেড়িয়ে আসার আদর্শ জায়গা হল– দীঘা। আর সপ্তমীর সকালেই দীঘার ট্রেনপথে এই অপ্রত্যাশিত বিভ্রাট দেখা দিল। পাঁশকুড়ায় ট্রেনলাইনের বিপর্যয়। পূর্ব মেদিনীপুরের রঘুনাথবাড়ি স্টেশনের কাছাকাছি লাইনচ্যুত হয়ে পড়েছে মালগাড়ির কয়েকটি বগি। সকাল ৮.১২ নাগাদ ঘটেছে এই দুর্ঘটনা। ফলে সেই পথে চলা ট্রেনসংক্রান্ত বাধার মুখে পড়েছেন যাত্রীরা।

সকালেই রেল কর্তৃপক্ষের তরফে ঘোষণা করা হয়েছিল পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে অন্তত ২ ঘন্টা সময় লাগবে। সে হিসেবে এখন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসলেও পরিবর্তিত হয়েছে ট্রেনের নির্ধারিত সময়সীমা। বাতিল করা হয়েছে বহু ট্রেন। স্বাভাবিক যাত্রাপথ আজ সারাদিনের মতোই বিভ্রাটে। মুখে পড়েছেন যাত্রীরা। সকালেই রেল কর্তৃপক্ষের তরফে ঘোষণা করা হয়েছিল পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে অন্তত ২ ঘন্টা সময় লাগবে

অনেকেই ষষ্ঠীতে ছুটি পাননা, তাই সপ্তমীর দিনই ব্যাগপ্যাক নিয়ে বেরিয়ে পড়েন, বেরিয়ে পড়েছেনও তাই।
খবর অনুযায়ী খড়গপুর স্টেশনের পরথেকে বাতিল হয়েছে আসানসোল-হলদিয়া স্পেশ্যাল ট্রেন। সারাদিনের মতো বাতিল হয়েছে হাওড়া-দীঘা স্পেশ্যাল এক্সপ্রেস।

যেসব যাত্রীরা আজ সকালেই দীঘা যাওয়ার জন্য  হাওড়া পৌঁছেছিলেন, তাঁদের অনেকেই পরিস্থিতি বেগতিক বুঝেই তড়িঘড়ি বাস ধরতে ছুটেছেন। ফলে ভিড়ের চাপ পড়তে পারে বাস পরিষেবাতেও। করোনা পরিস্থিতির কথা এসময়য়ে স্বাভাবিক ভাবেই কারুর মনে থাকার কথা নয়।

সপ্তমীর সকালের এই ঘটনা  তাই দীঘার লক্ষ্যস্থলে পৌঁছতে চাওয়া বেশ কিছু মানুষকে সমস্যার মুখে ফেলে দিল। কীভাবে এই দুর্ঘটনা ঘটল তা খতিয়ে দেখছে প্রসাশন। যত তাড়াতাড়ি সম্ভব পরিস্থিতি স্বাভাবিক ও সচল করার জন্য চেষ্টা চালানো হচ্ছে।