কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

নতুন পদে শুভেচ্ছার সঙ্গে খোঁচাও দিলেন দিলীপকে ! খোশ মেজাজে বাবুল সুপ্রিয়

Current India Features Politics

বাংলায় রাজ্য সভাপতির পদে দিলীপ ঘোষ এর সময় ২০২৩ সাল পর্যন্ত থাকলেও একুশের সেপ্টেম্বরে তাঁকে সরিয়ে দেওয়ার পর রাজিনীতিতে জল্পনার শেষ নেই । দিলীপ ঘোষের মতো বড় নেতার অপসারণের ফলে মানুষের মনে দলের ভিতরের দ্বন্দ্ব প্রকাশে এলেও বিজেপি নেতৃত্ব একে দলের ভিতরের সিদ্ধান্ত বলে জানিয়েছেন । আর এবার বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যাওয়ায় খবরের শিরোনামে থাকা বাবুল সুপ্রিয়র খোঁচা দেওয়া শুভেচ্ছাবার্তায় রাজনীতির অঙ্গন আরো যে উত্তপ্ত হলো তা বলা যায় ।

দুদিন আগে বাবুল সুপ্রিয়র তৃণমূলে যোগদান নিয়ে প্রতিক্রিয়া চাওয়া হলে দিলীপ ঘোষ জানান , ” বাবুল দলে থেকেও যখন দলের কোনো লাভ হয়নি তখন চলে যাওয়াতে কোনও ক্ষতি হবে বলে মনে করি না ।বাবুল সুপ্রিয় বন্ধু মানুষ এবং তিনি স্টার তবে দলের কোনদিন হয়ে ওঠেননি । তিনি পূর্বে আবেগ দিয়ে সব করেছেন আর বর্তমানেও তাই । ” দিলীপের এই বক্তব্যের পর বাবুল চুপ থাকলেও আজ খোশমেজাজেই তিনি সব প্রশ্নের উত্তর দিলেন ।

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

দিলীপ ঘোষের রাজ্য সভাপতি পদ থেকে অপসারণ ও কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি পদে নিযুক্ত হওয়ার ব্যাপারে বাবুলকে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি জানান , ” দিলীপদা বাংলায় সভাপতি থাকাকালীন অনেক খেটেছেন । বর্তমানে কেন্দ্রীয় সহ সভাপতি পদ পাওয়ায় তাঁর জন্য শুভেচ্ছা রইলো । ভালো করে কাজ করুক । তবে মজা করে বলবো , দিলীপদা সোশ্যাল মিডিয়ায় ‘ভারতীয় নতুন রাজ্য সভাপতি’ লিখেছে দেখলাম তবে এটা লেখার মানে বুঝতে পারলাম না । ” এরপর তিনি খোঁচা মেরে বলেন , ” হয়তো আমার দেওয়া বর্ণ পরিচয়টা ওঁর কাজে লাগবে । “

বাবুলকে এদিন বেশ খোশ মেজাজে দেখা গেলো । রাজ্যে বিজেপির নতুন সভাপতি সুকান্ত মজুমদার এক জায়গায় বলেন , বাবুলদা বিজেপিতে থাকলে ভালো হতো । এই নিয়ে জিজ্ঞাসা করায় দুবারের কেন্দ্রিয় মন্ত্রী জানান , ” এখন আমি বিরোধী দলে । তবে আগেকার সহকর্মীদের সঙ্গে সিরিয়াসলি লড়াই হবে । কিন্তু তা শত্রুতার পর্যায় নিয়ে যাবো না । ” এরপর সুকান্তকে শুভেচছা জানতেও ভোলেননি তিনি ।

এরপর দেখা যায় , তৃণমূল ও দিদির প্রশংসা করে বাবুল বলেন , ” নতুন দলে সবার সাথে ভালোভাবে কাজ করতে পারবো বলেই আশা রাখছি । ” ফলে , বর্তমানে বাংলার রাজনীতি বাবুল ও দিলীপ ইস্যুতে যে বেশ গরম হয়ে উঠেছে তা অনস্বীকার্য ।