VoiceBharat News NC Main

নাকা চেকিং আসলে দুর্ঘটনা কমানোর উদ্দেশেই। মূলত গাড়ির কাগজপত্র দেখতে চাওয়া হয়। পথচলার নিয়ম না মানলে তাঁকে পাকড়াও করা হয়। কিন্তু অনেক ক্ষেত্রেই নাকা চেকিংয়ের মাধ্যমে বাইকআরোহী বা গাড়ির চালককে হেনস্থা করা হয়। এবার এই নিয়েই তত্‍পর হল কলকাতা পুলিশ।

ট্রাফিক বিভাগের তরফে সব ট্রাফিক গার্ডের ওসি এবং এওসিকে নির্দেশিকা পাঠানো হয়েছে। সেখানে স্পষ্ট বলা হয়েছে, যে পুলিশ কর্মীদের গাড়ির নথিপত্র পরীক্ষা করার অনুমোদন নেই, তাঁদের গাড়ির নথিপত্র পরীক্ষা করার দায়িত্বে বহাল করা যাবে না। অনেকে মনে করছেন, সিভিক ভলান্টিয়ারদের দৌড়াত্ম্য রুখতে এই নির্দেশি জারি করা হয়েছে।

বেশ কয়েক মাস ধরেই অভিযোগ এসেছে, হোমগার্ডরা নিয়ম লঙ্খন করছেন। ভোগান্তি হচ্ছে গাড়ির চালকদের। অকারণেই তাঁদের বিপাকে ফেলা হচ্ছে। এসব বিবেচনা করে লালবাজারের নির্দেশ, কেবলমাত্র সাব ইনস্পেক্টর ও সার্জেন্টরাই নথিপত্র পরীক্ষা করার অনুমোদন পাবেন। যাঁদের এক্তিয়ার নেই, তাঁরা গাড়ির কাগজ দেখতে পারবেন না।
এই নির্দেশ অমান্য হলে বিভাগীয় শাস্তির মুখে পড়তে হবে ওই পুলিশ কর্মীকে। জবাবদিহি করতে হবে সংশ্লিষ্ট ট্রাফিক গার্ডের কর্তাদের। নির্দেশ অনুযায়ী, আবার আইন ভাঙা গাড়ির চালকের প্রতি সহানুভূতিও দেখাতে পারবেন না সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মী। নাকা চেকিংয়ের সময় আইন অমান্যকারী চালক যদি বাজে ব্যবহার করেন, তাহলে তা বডি ক্যামেরায় তুলে রাখতে হবে।