narada-16370434673x2

নারদা কান্ডের মামলার শুনানি ছিল আজ। উপস্থিত ছিলেন ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র, শোভন চট্টোপাধ্যায়। আদালতের নির্দেশে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন পেলেন এই ৩ নেতা। অবশ্যই শর্তের বিনিময়ে।


২০১৬ সালে নারদা স্টিং অপারেশন রাজনৈতিক মহলে ঝড় তুলেছিল। লুকোনো ক্যামেরায় ঘুষ নিতে দেখা গিয়েছিল মুকুল রায়, শুভেন্দু অধিকারী, সুব্রত মুখোপায়ধ্যায়, ফিরহাদ হাকিম, শোভন চট্টোপাধ্যায়, মদন মিত্র প্রমুখ নেতাদের। বহুদিন ধরে চলতে থাকা সেই মামলায় অন্যান্য মন্ত্রীরা জামিন পেলেও , সম্প্রতি ৫ নেতার বিরুদ্ধে চার্জশিট জমা দিয়েছিল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা ইডি। এঁরা হলেন সুব্রত মুখোপাধ্যায়,ফিরহাদ হাকিম, শোভন চট্টোপাধ্যায় , মদন মিত্র এবং আইপিএস অফিসার এমএইচ মির্জা।


সুব্রত মুখোপাধ্যায় সদ্য প্রয়াত হয়েছেন। উক্ত নেতাদের মধ্যে আজ আদালতে হাজিরা দিয়েছিলেন ফিরহাদ হাকিম, মদন মিত্র, শোভন চট্টোপাধ্যায়। শোভনের সাথে বৈশাখি চট্টোপাধ্যায়ও ছিলেন।


২০ হাজার টাকার বন্ডের বিনিময়ে জামিন পেলেন মদন মিত্র, শোভন চট্টোপাধ্যায় ও ফিরহাদ হাকিম। আদালতের পক্ষ থেকে শর্ত দেওয়া হয়ছে পরবর্তী শুনানি পর্যন্ত দেশ ছেড়ে বাইরে যেতে পারবেননা জামিনপ্রাপ্ত তিন নেতা। পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য করা হল ২০২২-এর ২৮ জানুয়ারী।


পাশাপাশি এইদিন আদালতে এমএএইচ মির্জার অনুপস্থিতি নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। আগে জামিন পেলেও এই শুনানির দিন তাঁকে আদালতে হাজির থাকার নির্দেশ দেওয়া হয়েছিল। আইপিএস অফিসার এমএএইচ মির্জা সে নির্দেশ অগ্রাহ্য করে এদিন অনুপস্থিত ছিলেন। ইডির পক্ষ থেকে আইনজীবি প্রশ্ন তুলেছেন মির্জার বিরুদ্ধে। আদালতে হাজিরা না দেওয়ার জন্য এমনকি তাঁর জামিন বাতিল করার প্রস্তাবও দিয়েছেন আইনজীবি; উঠেছে গ্রেপ্তারির কথাও।


নারদা মামলায় গত সেপ্টেম্বর মাসেই পাঁচ নেতার বিরুদ্ধে চার্জশিট দিয়েছিল তদন্তকারী সংস্থা ইডি। আজ শর্তাধীন জামিন পেলেন ৩ নেতা। সওয়াল উঠল এমএইচ মির্জার গরহাজিরা নিয়ে। এবার পরবর্তী শুনানির অপেক্ষা।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com