কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

‘পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি ইতিহাস লিখবে’: এখনও স্বপ্ন দেখাচ্ছেন জে পি নাড্ডা

Current India Features Politics

২০২১-এ ঠিক এই স্বপ্নে বিভোর হয়েই প্রচুর নেতা তৃণমূল কংগ্রেস ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। কিন্তু বিধানসভা নির্বাচনের ফল প্রকাশের পরেই চিত্রটা বদলাতে শুরু করে। মুকুল রায় ‘দুকূল’ ট্রমায় আক্রান্ত হন, আর তাঁর দেখাদেখি অসংখ্য দলছুট নেতারাই আবার তল্পিতল্পা গুটিয়ে ফিরতে থাকেন তৃণমূলে। দল ভেঙে পালান বাবুল সুপ্রিয়, সদ্য ফিরেছেন রাজীব। এরপরেও জে পি নাড্ডা প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন –“পশ্চিমবঙ্গে বিজেপি ইতিহাস লিখবে”।


আজ দিল্লীতে বিজেপির জাতীয় স্তরের কর্মসমিতির মিটিংয়ে দলের সর্বভারতীয় সভাপতি জে পি নাড্ডা কার্যত এমন ঘোষণাই করেছেন।

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304


অনুপম হাজরা, স্বপন দাশগুপ্ত, কৈলাশ বিজয়বর্গীয়কে সাক্ষী রেখে বিজেপির সভাপতি একাধিক অভিযোগে মুখ খুলেছেন রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে। ভোট পররবর্তী হিংসার আলোচনাও উঠে এসেছে আলোচনায়। জে পি নাড্ডা এদিন বলেন, “বাংলায় ৫৩ জন কর্মী খুন হয়েছেন। লক্ষ লক্ষ কর্মী ঘরছাড়া। তাসত্ত্বেও বাংলার মানুষ বিজেপির পাশে দাঁড়িয়েছে। প্রাপ্ত ভোট ৩৮ শতাংশ হয়েছে। ৭৭টি আসন পেয়েছে বিজেপি”।


এই সভায় রীতিমতো দিনক্ষণ বেঁধে কর্মীদের লক্ষমাত্রা স্থির করে দিয়েছেন সভাপতি জে পি নাড্ডা। ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত সময়, তার মধ্যেই বুথস্তরে কমিটি প্রস্তুত করে ফেলবার স্পষ্ট নির্দেশ দিয়ে বলেছেন,”বুথ স্তরে কর্মীদের ‘মন কি বাত ‘ শুনতে হবে “।


জে পি নাড্ডা জোর দিয়ে বলেছেন এপর্যন্ত প্রত্যেকটি ভোটেই বিজেপির ভোট বেড়েছে। তাই সামনের দিনেও বাংলায় সমানভাবে মানুষের সমর্থন নিয়ে লড়বে বিজেপি। “নতুন ইতিহাস রচনা করবে”।


এদিকে জে পি নাড্ডার ‘রচনা লেখা’য় বাধ সাধছেন রাজনৈতিক মহলের কেউ কেউ। তাদের মতে, এগুলো আসলে দলের নেতা কর্মীদের মনোবল বাড়ানোরই একটা মরিয়া চেষ্টা। দল যখন ভাঙনে পর্যুদস্ত। বাবুলের পর আগরতলায় রীতিমতো ঘোষণা করে দলত্যাগ করে তৃণমূলে যোগ দিলেন, জয় ব্যানার্জী ছেড়েই দিয়েছেন, আরো কতজন যে দল ছাড়বেন তার ঠিক নেই। এমন পরিস্থিতিতে ৭৭ আসনের মন্ত্র জপে বাংলায় ইতিহাস লেখার কথা বলা প্রলাপ ছাড়া আর কিছু নয়।


তবে নিন্দুকেরা যে যাই বলুন, ইতিহাস তার নিজের পাতা নিজেই লিখে যায়। সেই লিখনে বাংলায় বিজেপির ভাগ্য লিখন কী হবে, সেটা সময়ই বলে দেবে।