কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

পিয়ার কাছে ‘প্রাক্তন’ হলেন অনুপম: বিচ্ছেদের কারণ কী

Current India Entertainment Features

“তুমি যাকে ভালোবাসো/স্নানের ঘরে বাষ্পে ভাসো/ তার জীবনে ঝড়”…
প্রিয় গায়ক ও গীতিকারের এই গানের পংক্তি ছুঁয়েই প্রশ্ন করেছেন অসংখ্য অনুরাগী — কার জীবনে ঝড় উঠল! অনুপমের, নাকি পিয়ার? সুখী দাম্পত্যে হঠাৎ কেন এই বিচ্ছেদ?


না, বিচ্ছেদ ঘোষণা করলেও ‘অন্য কারোর সঙ্গে বেঁধো ঘর’ এমন কোনও বার্তা দেননি তাঁরা। বরং সামনের দিনগুলোয় ভালো বন্ধু হয়ে পাশে থাকার ইঙ্গিত দিয়েছেন।

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304


দুদিন আগেই ট্যুইটারে নিজেদের বিবাহ বিচ্ছেদের কথা জানিয়েছেন অনুপম রায় ও পিয়া চক্রবর্তী। দুজনে যৌথভাবে একটি চিঠির মারফত জনসমক্ষে যে বার্তা দিয়েছেন তা হলো, “আমরা, অনুপম এবং পিয়া যৌথভাবে বিবাহ বিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এরপর থেকে আমরা স্বাধীনভাবে বন্ধু হিসাবে জীবনকে এগিয়ে নিয়ে যাব…” এই বার্তায় নিজেদের ৬ বছরের দাম্পত্য জীবনের সুন্দর ও মনে রাখার মতো অভিজ্ঞতাগুলোকে স্মৃতিতে অমূল্য করে ধরে রাখার কথাও জানিয়েছেন পিয়া-অনুপম।

জানিয়েছেন দুজনের ভবিষ্যতের কথা ভেবেই এই সিদ্ধান্ত, যাতে দুজনেরই ভালো হবে। স্বজন বন্ধু হিতাকাঙ্খীদের সমর্থন জানানোর অনুরোধ করে দুজনের এই বিচ্ছেদ ও ভাবী বন্ধুজীবনের সিদ্ধান্তকে সম্মানের সাথে অভ্যর্থনা জানানোর প্রস্তাব রেখেছেন তাঁরা।


অনুপম ও পিয়ার এই বিচ্ছেদ বার্তা যে নজিরবিহীন একথা অনস্বীকার্য। কিন্তু তাতে অবশ্য জল্পনা থেমে থাকেনি। অনেকেই ভিতরে নানারকম কারণ আবিষ্কারের চেষ্টা করেছেন। পিয়া চক্রবর্তী নিজেও সঙ্গীতশিল্পী। হিন্দি সিনেমা ‘অভিমান’-এর মতো প্রচ্ছন্ন ইগোর লড়াই লুকিয়ে নেই তো? ভেবেছেন কেউ কেউ। তেমনই অনেকে বিচ্ছেদের পেছনে অন্য তৃতীয় এক সম্পর্কের জোরালো আভাস দিয়েছেন।

২০১৫ সালের ৬ ডিসেম্বরেই সম্পর্কে বাঁধা পড়েছিলেন দম্পতি


টলিউডের এক সফল তারকা নায়কের সাথেই নাকি হৃদ্যতা বেড়েছে পিয়ার। গুঞ্জনে যার নাম ভেসে এসেছে তিনি পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়। ইয়াস বিধ্বস্ত গ্রামবাংলার সাহায্যার্থে গঠিত সংগঠন ‘বাংলা সংস্কৃতি মঞ্চে’ কৌশিক সেন, অনুপম, ঋদ্ধি, পরমব্রত, পিয়া সহ যোগ দিয়েছিলেন টলিউডের অনেকেই। কানাঘুষো বলছে, এখান থেকেই নাকি পরম প্রিয় হয়ে ওঠেন পিয়ার কাছে! এছাড়াও ২৭ জুন পরমব্রতর জন্মদিনে পোস্ট করা পিয়ার শুভেচ্ছা বার্তাতেও প্রচ্ছন্ন ইঙ্গিত পেয়েছেন অনেকে। পিয়া লিখেছিলেন, “শুভ জন্মদিন। আরো অনেক স্মৃতি তৈরি করব আমরা”।

একইভাবে ১৬ আগস্ট পিয়া চক্রবর্তীর জন্মদিনে ইনস্টায় পিয়ার সাথে ছবি পোস্ট করে পরম লিখেছিলেন, “শুভ জন্মদিন। কমরেড, ভরসার মানুষ। চল অনেক সুন্দর সু্ন্দর স্মৃতি তৈরি করি…”। যদিও সেটা গ্রুপ ছবিই ছিল। তবু পরম আর পিয়াকে বারবার একসাথে দেখতে পাওয়ার এবং তার সাথে ‘সুন্দর স্মৃতি তৈরি করার’ ভাবী ইঙ্গিত এসব মিলিয়েই দুয়ে দুয়ে চার করতে চেয়েছেন গুঞ্জনকারীরা।


তবে গুঞ্জন যাই থাকুক, প্রকাশ্যে ডিভোর্স ঘোষণা করেও ভালো বন্ধু হয়ে পথ চলার সিদ্ধান্তে পিয়া-অনুপম জুটি অনন্য নজির তৈরি করলেন। তাদেরকে তাদের মতো থাকতে দেওয়াই ভালো, একান্ত অনুরাগীদের এটাই মত।