VoiceBharat News IMG 20210906 174029

প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি পড়েছেন বেকায়দায়। এই উপনির্বাচনে নিজের ভূমিকা ঠিক কী হওয়া উচিত, ভেবে কূল না পেয়ে, নিজেই রেফারি হিসেবে অবতীর্ন হলেন। নেমেই তৃণমূলকে লক্ষ করে ঝাড়লেন তোপ।

অধীর রঞ্জন চৌধুরীর মনোভঙ্গী ভাদ্রের মেঘের মতোই পাল্টায়। উপনির্বাচনের মাসদুই আগে বললেন, ভবানীপুরে কংগ্রেস লড়তে চায়। তার কিছুদিন পরে বললেন, মমতার বিরুদ্ধে প্রার্থী দেওয়া ঠিক হবেনা — অবশ্যই এটা তাঁর ‘ব্যক্তিগত মত ‘ বলেই জোর দিয়েছিলেন।

সত্যিই ব্যক্তিগত মত ছিল, নাকি দিল্লীর বার্তা আন্দাজ করেই আগেভাগে সেটা বলেছিলেন, তা নিয়ে রাজনৈতিক মহলে সংশয় রয়েছে। মোট কথা ভবানীপুরে মমতার বিরুদ্ধে কংগ্রেস প্রার্থী দেয়নি।

VoiceBharat News 1631186315 adhir chowdhury


এদিকে কংগ্রেসের নরম পন্থাকে দুর্বলতা ঠাউরে নিজেদের দলীয় মুখপত্রের সম্পাদকীয়তে অ্যায়সা প্রাণ খুলে ঝাড়লো তৃণমূল, যা কখনো কোনো বিরোধী দলও ভাবতে পারেনি!

ওই ঘটনাতেও গরম কোনো প্রত্যুত্তর দিতে পারেননি অধীর, সম্ভবত দলীয় নির্দেশে। এবার তাই উপনির্বাচনের আগের দিন নিজেই রেফারি হয়ে নেমেই অধীরের স্পষ্ট নির্ঘোষ,”ভবানীপুরে শান্তিপূর্ণ ভোট হবে, তবে সবাই ভোট দিতে পারবেনা। কারণ সেখানে তৃণমূলের বিরোধীদের বাড়ি থেকে বেরোতেই দেবেনা তৃণমূল।কর্মীরা সর্বশক্তি দিয়ে তাদের দিদিকে জেতানোর চেষ্টা করবে।”


ওদিকে শামসেরগঞ্জ নিয়েও একই মন্তব্য অধীরের। বলেছেন, “শামসেরগঞ্জে আমরা শান্তিপূর্ণ ভোট চাই। মানুষ যাতে স্বেচ্ছায় ভোট দিতে পারেন আমরা তার দাবি জানাচ্ছি। প্রশাসনের কাছে আবেদন, তাঁরা এবিষয়ে নজর দিন”।
কার্যত এভাবেই নিজের অবস্থান জানিয়েছেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com