কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

বাংলাদেশি শিল্পীর প্রদর্শনী বন্ধ করা হল কেন : প্রশ্ন তুললেন অধীর চৌধুরী

Current India Features International Politics

এবার বাংলাদেশি শিল্পীর প্রদর্শনী বন্ধ করার তীব্র বিরোধীতা করে সরব হলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী।


আজ ২৩ অক্টোবর দিল্লীর ললিত কলা ভবনে আয়োজন করা হয়েছিল বাংলাদেশি শিল্পী রোকেয়া সুলতানার চিত্র প্রদর্শনী। ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রীর ৫০ বছর পূর্তি উপলক্ষ্যেই ছিল এই আয়োজন। আচমকাই ওই প্রদর্শনী স্থগিত করে দিল ‘ইন্ডিয়ান কাউন্সিল ফর কালচারাল রিলেশনস্’ (আইসিসিআর)।

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304
এবছর ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রীর ৫০ বছর পূর্তি

বাংলাদেশের বর্তমান ধর্মীয় হিংসাত্মক আবহাওয়াই কি এর কারণ? উঠেছে প্রশ্ন। বাংলার প্রতিনিধি হিসেবে মুখ খুলেছেন অধীর চৌধুরী। এই অপমানজনক সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ট্যুইট করে তিনি লিখেছেন, “কোনো কারণ ছাড়াই বাংলাদেশি শিল্পী রোকেয়া সুলতানার একক প্রদর্শনী স্থগিত করে দেওয়া হয়েছে”। আইসিসিআর-এর এই সিদ্ধান্তের সমালোচনা করে শীঘ্রই প্রদর্শনী চালু করার আর্জি জানিয়েছেন অধীর চৌধুরী।

উল্লেখ্য, শিল্পী রোকেয়া সুলতানা বিশ্বভারতীর কলাভবন থেকে এমএ, এমফিল করেছেন। সোমনাথ হোড়, লালুপ্রসাদ সাউ ও সনৎ করের স্নেহ সাহচর্যে শিক্ষা পেয়ে এসেছেন। এবার ভারত- বাংলাদেশ মৈত্রীর ৫০ বছর উপলক্ষে অক্টোবরের শুরুতে ঢাকায় এই শিল্পীর প্রদর্শনী হয়েছে। এর দ্বিতীয় ধাপেই দিল্লীতে তাঁর প্রদর্শনী হওয়ার কথা ছিল।


যদিও আইসিসিআর-এর পক্ষ থেকে অমিত সহায় মাথুর বলেছেন ” আসা যাওয়ার সমস্যার কারণেই অনুষ্ঠান বাতিল করতে হয়েছে”। কিন্তু সমস্যাটা ঠিক কিসের তা সোজাসুজি বলা হয়নি। ফলে প্রশ্ন একটা থাকছেই।

এখন পরবর্তী তারিখ কবে দেওয়া হবে সেই অপেক্ষাতেই রয়েছেন সবাই। শিল্পী রোকেয়া সুলতানা দিল্লীতে অনুষ্ঠান বাতিলের সিদ্ধান্তে বিচলিত হলেও আশা হারাননি। সাবলীলভাবেই বলেছেন, “আঁকা চালিয়ে যাব। আমি আশাবাদী “।

রোকেয়া সুলতানা


এই আশাবাদকেই আরো ত্বরান্বিত করলেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি অধীর চৌধুরী। কেন্দ্রীয় সরকারের কাছে আবেদন জানিয়ে বলেছেন, “যত তাড়াতাড়ি সম্ভব প্রদর্শনী শুরু করার আর্জি জানাচ্ছি। এই সাংস্কৃতিক বিনিময় দুই দেশের সম্পর্ককে আরও মজবুত করবে”।
ভারত-বাংলাদেশ সম্পর্ক নিয়ে অধীর চৌধুরীর এই বার্তা এই অশান্ত পরিস্থিতিতে বিশেষভাবেই সংস্কৃতি মহলের নজর টেনেছে।