আমাদের Telegram এ ফলো করুন সবার আগে সর্বশেষ আপডেট পান Click Here

Google News এ ফলো করুন Click Here

বাংলায় ভারী দুর্যোগের বলি হয়ে মৃত্যু ১৪ জনের, আশঙ্কায় শহরবাসী

Current India Features Nature

সকাল হলেই মেঘ আর পাল্লা দিয়ে তুমুল বৃষ্টি । এ যেন এখন শহরের চেনা ছবি হয়ে দাঁড়িয়েছে । আর এর ফলে সারা বাংলা জুড়ে বৃষ্টিতে দুর্ভোগে দুর্দশার চিত্র সর্বত্র ভয়ের সঞ্চার ঘটাচ্ছে । শহরের পথে ঘাটে জল দুর্ভোগ , গ্রামে বন্যার ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি নিয়ে আসে এই বৃষ্টি । আর সেই আশঙ্কা আরো বাড়িয়ে ঘনাচ্ছে একের পর এক নিম্নচাপ । সেই দুর্যোগের জেরে বাংলায় বলি হলো একাধিক মানুষ যা প্রত্যেকের মনে উদ্বেগের সঞ্চার করেছে বলা যায় ।

সূত্রের খবর , একের পর এক নিম্নচাপ ডানা বাঁধায় হয়েছে মুশকিল । কিছুদিন ধরে উত্তর বঙ্গোপসাগর ও সংলগ্ন মধ্য বঙ্গোপসাগরের নিম্নচাপের জেরে দুর্যোগের মুখোমুখি হয় বাংলা । এবার আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে , নিম্নচাপের জেরে বাংলার বুকে আরো ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে । ফলে শহরের পথে ঘাটে অফিস যেতে যেমন মানুষ দুর্ভোগের সম্মুখীন হচ্ছে তেমনি কোমর অব্দি জলে জীবন কাহিল গ্রামবাংলার মানুষের ।

কলকাতার হালও শোচনীয় । একটানা অতিভারী বৃষ্টিতে জলমগ্ন অবস্থা শহর কলকাতার একাধিক এলাকার । গত বেশ কয়েকদিনে দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে প্রচুর বৃষ্টি হয়েছে আর এই পরিস্থিতি যে সহজে কাটবে না তাও জানিয়েছে মৌসম ভবন । তবে রাজ্য সরকারও অতিবৃষ্টি পরিস্থিতি সামাল দিতে বেশ তৎপর । নবান্নের বিপর্যয় মোকাবিলা দফতর জানিয়েছে , গত ১৪ সেপ্টেম্বর থেকে ১৮ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত মাত্র চারদিনেই বাংলায় দুর্যোগে মৃত্যু হয়েছে মোট ১৪ জনের ।

জানা যাচ্ছে , মৃত ১৪ জনের মধ্যে কেউ জলে ডুবে প্রাণ হারান তো আবার কেউ দেওয়াল চাপা পড়ে কিংবা বিদ্যুৎপৃষ্ট হয়ে মারা যান । সবচেয়ে খারাপ হাল পশ্চিম মেদিনীপুরের । মৃতদের মধ্যে ৭ জন মানুষই এই জেলার মানুষ । একজন আবার পূর্ব মেদিনীপুরের বাসিন্দা । বাকি জেলারও বহু মানুষ বলি হয়েছেন এই দুর্যোগে । সূত্রের খবর , এখনও রাজ্যের ৪৭ টি ব্লগ এবং আটটি পুরসভা জলের তলায় রয়েছে । এরমাঝে জলবন্দি রয়েছেন ১৩ লক্ষ ১৪ হাজার ৩২৮ জন মানুষ । একাধিক ঘরবাড়িও জলমগ্ন বলে জানা যাচ্ছে ।

এই মুহূর্তে বিপর্যয় মোকাবিলায় সরকার উঠেপড়ে লেগেছে । রাজ্যে এই মুহূর্তে ৫৭৭ টি ত্রাণ শিবির চলছে যেখানে প্রায় ৮০ হাজারের বেশি মানুষ আশ্রয় পেয়েছেন । মানুষের সাহায্যার্থে ৬০ হাজার ত্রিপল বিলি করা হয়েছে । নবান্ন থেকে চলছে ২৪ ঘণ্টার কন্ট্রোল রুম যেখানে ফোন করে মানুষ নিজেদের অবস্থা জসনাতে পারবে । যার টোল ফ্রি নম্বর ১০৭০২২১৪৩৫২৬ (107022143526) । বর্তমান পরিস্থিতিতে সরকারের উদ্যোগে মানুষ যে কিছুটা চিন্তামুক্ত হয়েছে তা বলা যায় ।