কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

বিজেপিতে এখনো বহু বিশ্বাসঘাতক রয়েছে ; বিস্ফোরক দাবি তথাগত রায়

Current India Features Politics

কেরিয়ারের শুরু বিজেপিতে করেছিলেন । কট্টর বিজেপি নেতা হিসেবে পরিচিত বাবুল দিদিকে আক্রমণ করতেন সর্বদা । কিন্তু কিছুদিন পূর্বে সেই বাবুল সুপ্রিয়র তৃণমূলে যোগদানে অবাক হয়েছিলো শহরবাসী আর নেট মাধ্যমে চলেছিলো নানা রকমের মিম । এবার মুকুল রায় থেকে বাবুল সুপ্রিয়র এই দলবদলকে কেন্দ্র করে তাদেরকে একযোগে আক্রমণ করে বিস্ফোরক দাবি তুললেন বিজেপি নেতা তথাগত রায় ।

বাবুল সুপ্রিয় একা নয় এই লিস্টে । বিধানসভায় বিজেপির হারের পর বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে গিয়েছেন একাধিক নেতা । আর তাতে চটলেন তথাগত । তাঁর মতে , অনেকেই চলে গেছেন কিন্তু কিছু বিশ্বাসঘাতক এখনও দলে আছে ! বিজেপি ছেড়ে নেতাদের তৃণমূলে যোগদান প্রসঙ্গে এভাবে বিস্ফোরণ ঘটালেন তথাগত রায়।

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

বিশ্বাসঘাতক ! মীরজাফর ! তো আবার গদ্দার ! বিধানসভা ভোটের আগে দলে দলে তৃণমূলের নেতাদের বিজেপিতে যোগ দেওয়ার মুহূর্তে এই সব পদবি ব্যবহার করেছিল তৃণমূল দলের শীর্ষ নেতৃত্ব । আর এখন উলাটপুরান মাঝে বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যখন নেতাদের যাওয়ার ভিড় লেগেছে , তখন সেইসব শব্দবন্ধ ব্যবহার করে একপ্রকার চমক দিলেন বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি তথাগত রায় ।

কিছুদিন আগে রাজনীতি উত্তপ্ত হয় যখন দিলীপ ঘোষকে সরিয়ে বিজেপি সুকান্ত মজুমদারকে বাংলার রাজ্য সভাপতি ঘোষণা করে । এর পরে অনেকে বিজেপির ভিতরের কলহ তুলে ধরার চেষ্টা করলেও বিজেপি এই ধারণা নস্যাৎ করে দেয় । তাই দুদিন পূর্বে নতুন রাজ্য সভাপতির সম্বর্ধনা অনুষ্ঠান হয় এবং সেই অনুষ্ঠান উপলক্ষ্যে বিজেপির রাজ্য সদর দফতরে উপস্থিত হন তথাগত রায় । সেখানে তিনি বসেন দিলীপ ঘোষের পাশে ! সেখানে বক্তব্য রাখতে উঠে বিস্ফোরক মন্তব্য করেন তিনি ।বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি তথাগত রায় বলেন , ” বাবুল গেছে আবার আগে মুকুল গেছে । তবে আরও বিশ্বাসঘাতক আছে কিন্তু নাম বলা যাবে না । ” এরপর তৃণমূল কটাক্ষ করে বলে , যদি তিনি বিশ্বাসঘাতকদের নাম জানেন তাহয়ে সর্বসমক্ষে বলা উচিত ।

সভায় প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি বিস্ফোরক হলেও বেশ ঠান্ডা মাথায় বার্তা দিয়েছেন বর্তমান রাজ্য সভাপতি । সুকান্ত মজুমদার দায়িত্ব পেয়ে কলকাতায় এসে বলেন , ” দল কী উদ্দেশ্য নিয়ে পরিবর্তন করছে সেটা গুরুত্বপূর্ণ , এরপর কেউ যদি ভাবেন আমার বিশেষ সুযোগ লাগবে বলে তাই আমি টিএমসিতে যাব , তাহয়ে সেক্ষেত্রে আমি মনে করি রাজনীতিতে তা গর্হিত অপরাধ । “

এখন , বাবুলের পর তথাগত রায়ের কথায় আর কোনো নেতা তৃণমূলে যান কিনা সেদিকে তাকিয়ে সারা বাংলা ।