আমাদের Telegram এ ফলো করুন সবার আগে সর্বশেষ আপডেট পান Click Here

Google News এ ফলো করুন Click Here

বিধানসভায় ভবানীপুর ছেড়ে নন্দীগ্রাম কেন গেছিলেন মমতা: ফাঁস করলেন শুভেন্দু

Current India Features Politics

গত বিধানসভা নির্বাচনে নিজের এলাকা ছেড়ে নন্দীগ্রামের প্রার্থী হয়ে ভোটে দাঁড়িয়েছিলেন মমতা ব্যানার্জী। এটা ছিল ব্যতিক্রমী সিদ্ধান্ত। ঠিক কোন স্ট্র্যাটেজি কাজ করেছিল এর পেছনে, সেটা প্রকাশ্যে আসেনি।

তবে সম্ভবত নন্দীগ্রামে নিজের ইমেজটাকেই ভোটযুদ্ধে হাতিয়ার করতে চেয়েছিলেন। কার্যত সেই স্ট্র্যাটেজি যে ব্যর্থ হয়েছে সন্দেহ নেই। কিন্তু সেই প্রসঙ্গেই মমতা ব্যানার্জী সম্পর্কে বিস্ফোরক কথা বললেন শুভেন্দু অধিকারী।

আসন্ন উপনির্বাচনে ‘ঘরের মেয়ে’ ঘরের কাছেই ভবানীপুরেই ফিরে এসেছেন। মমতা ব্যানার্জীর বিপরীতে বিজেপি প্রার্থী হিসেবে দাঁড়িয়েছেন প্রিয়াঙ্কা টিব্রেয়াল। এদিন প্রিয়াঙ্কার হয়েই প্রচারে এসেছিলেন শুভেন্দু। নন্দীগ্রাম প্রসঙ্গ তুলে তোপ ছাড়লেন তিনি।
উল্লেখ্য, নন্দীগ্রামে শুভেন্দু অধিকারীর কাছেই ভোটে হেরেছিলেন মমতা ব্যানার্জী।


ভবানীপুরের প্রচার সভায় দাঁড়িয়ে সেই প্রসঙ্গটাকেই আরও একবার তুলে জনসমক্ষে মমতাকে লক্ষ্য করে শুভেন্দু বললেন,”আসলে নন্দীগ্রামে আমাকে হারিয়ে উনি এক ঢিলে দুই পাখি মারতে চেয়েছিলেন। আমায় হারিয়ে ভবানীপুর থেকে পালাতে চেয়েছিলেন”।


এরপরেই মমতা ব্যনার্জীর ভবানীপুর ছাড়ার কারণ হিসেবে শুভেন্দু  অভিযোগ করে বলেন,”দশ বছরে ভবানীপুরের জন্য কিছুই করেননি মমতা। একটাও বেকারের মুখে হাসি ফোটাননি। গোটা হরিশ মুখার্জী রোড আর হরিশ চ্যাটার্জী স্ট্রিটটাকে কিনে নিয়েছেন। তৃণমূল সরকারের ৩ টে মাত্র এজেন্ডা — ভাতা ভিক্ষা ভর্তুকি”।


নিজের বক্তব্যে মমতার জনকল্যাণমূলক প্রকল্পকে এই ভাষাতেই তাচ্ছিল্য করলেন শুভেন্দু।  জোর দিয়েই বোঝাতে চাইলেন, –আসলে ভবানীপুর থেকে পালাতে চেয়েছিলেন তৃণমূল নেত্রী মমতা। হেরে গিয়ে সুবুদ্ধি ফেরায়, ঘরের মেয়ে ফিরে এসেছেন ঘরে।