domestic voilence

একুশ শতকে দাঁড়িয়ে ও মাঝে মধ‍্যেই মধ্যযুগীয় বর্বরতার নির্দশন প্রায়সই দেখা যাচ্ছে।এবার মর্মান্তিক ঘটনার সাক্ষী  মধ্যপ্রদেশের সিংগ্রাউলি জেলা।পরকীয়ার সন্দেহে পঞ্চান্নর বছরের স্ত্রীর যৌনাঙ্গ সূচ ,সুতো দিয়ে সেলাই করলেন ষাটোর্ধ্বর স্বামী।পরকীয়া সম্পর্ক রয়েছে বছর পঞ্চান্নর স্ত্রীর, এমন সন্দেহ করে সূচসুতো দিয়ে যৌনাঙ্গ সেলাই করে দিলেন স্বামী।

ষাটোর্ধ্বর স্বামীর সন্দেহ যে  স্ত্রী অপর কোনও পুরুষের সঙ্গে পরকীয়ার সম্পর্কে আবদ্ধ। এই ঘটনার পর বছর পঞ্চান্নের ওই মহিলা পুলিশের কাছে অভিযোগ দায়ের করেন।অভিযোগের ভিত্তিতে মহিলাকে স্থানীয় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পুলিশ ঐ মহিলার স্বামীকে শারীরিক ও মানসিক নির্যাতনের অভিযোগ ও একাধিক মামলা দায়ের করেছে। ঐ প্রবীন ব‍্যক্তির কী শাস্তি হতে পারে সেই বিষয়ে কিছু এখন জানা যায়নি।

মহিলা  আবেদন  তাঁর স্বামীকে কঠিন কোনও শাস্তি দেওয়া না হয়৷   এই শতকে দাঁড়িয়ে ও মধ‍্যযুগীয় বর্বরতা এখন চলছে গুটি কয়েক ঘটনা তারই প্রমান দিয়ে চলেছে।এবার মধ‍্যপ্রদেশ সেই নির্দশন দেখাল। শিক্ষা ব‍্যবস্থা ও সমাজ বদলেছে,এগিয়েছে অনেক।কিন্তু মানসিকতার বদলের দরকার এ শতকে দাঁড়িয়ে।মানসিকতা না বদলালে সমাজের অগ্ৰগতি সম্ভব হবে না।মধ‍্যপ্রদেশের ঘটনায় সারা দেশ মধ‍্যযুগীয় প্রাচীনপন্থী  মানসিকতার চরম র্নিদশন দেখাল।সারা দেশ সাক্ষী থাকল ঘৃন‍্য মানসিকতার।