346817-untitled-2021-09-21t220815.869-1

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শপথ বাক্য পাঠ অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত বিরোধী বিধায়করা। তবে বিজেপি বিধায়ক হিসেবে উপস্থিত কেবল মাত্র মুকুল রায়।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের (Mamata Banerjee) শপথ বাক্য পাঠ অনুষ্ঠানে অনুপস্থিত বিরোধী বিধায়করা।
কেউ এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত থাকেননি। বিষয়টি বেশ বিতর্ক তৈরি হয়। পরে এই বিষয়ে জবাব দেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদার (State BJP President Sukanta Majumder)।

বিজেপি রাজ্য সভাপতি সুকান্ত মজুমদার বলেন, বিরোধী-শূন্য রাখার ভাবনা থেকে ঘটনাটি ঘটেনি। রাজ্য জুড়ে বিধায়করা ব্যস্ত আছে। বিশেষ করে বন্যা পরিস্থিতি নিয়ে ব্যস্ত তাঁরা। আর এটা তো একজন বিধায়কের শপথ। আমাদের বিধায়করা শপথ নেয় তখন তৃণমুলের অনেকে ছিলেন না। তাই বিধায়কের শপথ গ্রহণে থাকার কোন প্রয়োজন নেই।

মমতা

সব্যসাচী দত্তের দলত্যাগ নিয়ে সুকান্ত বাবু বলেন, আমাদের দলে যখন ছিলেন তখন উপযুক্ত সম্মান দেওয়ার হলো। ওনার হয়ত ভালো লাগেনি। উনি দল বদল করেছেন সেটা ব্যক্তিগত ব্যাপার, থাকলে ভাল হত। তবে বিধানসভায় গিয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায় এর হাত ধরে দলবদল ঠিক নয় কারন বিধানসভা সাংবিধানিক জায়গা, সেখানে দলীয় কর্মসূচি হতে পারেনা।

২০১৯ সালে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন সব্যসাচী দত্ত। এবার পুরোনো দলে ফিরলেন তিনি। বিধানসভায় গিয়ে পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের উপস্থিতিতে তৃণমূলের পতাকা হাতে তুলে নেন তিনি।

এক সময় মুকুল রায়ের হাত ধরে বিজেপিতে গিয়েছিলেন সব্যসাচী। মুকুল তৃণমূলে ফেরার পর সব্যসাচীর সঙ্গে যোগাযোগের জল্পনা থাকে ।বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপি টিকিটে ভোট লড়েও পরাজিত হন সব্যসাচী। এরপর তাঁর এই পদক্ষেপ।