VoiceBharat News The first IAS in the history of Islampur the pride of North Dinajpur scaled 1

ফ্রিডম ফাইটার থেকে বৈজ্ঞানিক, রাষ্ট্রপতি পর্যন্ত হচ্ছে বাংলা থেকে। তাহলে আইএএস আইপিএস ই বা থাকবে কেন । আগে বাংলা থেকে আইএএস, আইপিএস খুব কম আসতো । কিন্তু মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর থেকে তিনি কোচিং সহ অন্যান্য সুবিধা দিতে শুরু করেন ফলে রাজ্যে আইএএস, আইপিএস হওয়া শুরু হয়েছে।

এমন কথা বললেন রাজ্যের মাদ্রাসা শিক্ষা দপ্তরের মন্ত্রী গোলাম রাব্বানী। ইসলামপুরের ইউপিএসসি পরীক্ষায় ইসলামপুরের ছেলেরা যে সাফল্য অর্জন করেন সেই আনন্দ ভাগ করে নিতে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের মাদ্রাসা শিক্ষা দপ্তর মন্ত্রী গোলাম রব্বানী ও উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন ইসলামপুরে প্রিন্সের বাড়িতে যান। তার মা ও পরিবারের সঙ্গে দেখা করেন মন্ত্রীদ্বয়।

আইপিএস

রাজ্যের মাদ্রাসা শিক্ষা দপ্তরের মন্ত্রী গোলাম রব্বানী বলেন, ” আজ খুব আনন্দের বিষয় ,এখান থেকে কিছু দূরে আমার বাড়ি। এই পরিবার আমার নিকট আত্মীয় হয়। ইসলামপুরের ছেলে হওয়াতে নিজেকে খুব গর্বিত অনুভব করছি।” উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের প্রতিমন্ত্রী সাবিনা ইয়াসমিন জানান, উত্তরবঙ্গের জন্য খুব গর্বের বিষয় সংখ্যালঘু পরিবারের ছেলে আজ আইএএস এর মতো পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েছে এবং প্রত্যেকে আনন্দ পেয়েছে। আগামী প্রজন্মের ছাত্র-ছাত্রীরা আরও উত্‍সাহিত হবে।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতিনিধি হিসেবে তাঁরা আইএএস হিসেবে পাশ করা প্রিন্সকে সংবর্ধনা জানাতে এসেছেন বলে জানান সাবিনা ইয়াসমিন। সোগড়া আজিজ প্রিন্সের মা বলেন, ”আমার ছেলে দেশের হয়ে কাজ করবে এটা ভেবে ভাল লাগছে। মন্ত্রীরা এসে শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়ে গেলেন। খুব আনন্দ অনুভব করছি।”