কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

hidden cam

মহিলা শৌচালয়ে গোপন ক্যামেরা উদ্ধার(Belur pathology center Hidden cam)

Current India Features

মহিলা শৌচালয়ের ভেতর থেকে ধরা পড়ল ভিডিও অন করে রাখা একটি মোবাইল। মঙ্গলবার বালি থানার অন্তর্গত বেলুড়ের কাছাকাছি এক বেসরকারী প্যাথলজি সেন্টারের শৌচালয়ে উদ্ধার করা হয় এই লুকিয়ে রাখা সেলফোন, তখনও তার ভিডিওটি অন মোডে ছিল।

অত্যন্ত লজ্জাজনক এই ঘটনায় ওই প্রতিষ্ঠানে মেয়েদের নিরাপত্তা নিয়েও প্রশ্ন উঠে গেছে। আটক করা হয়েছে প্যাথলজি সেন্টারের দায়িত্বে থাকা নিরাপত্তারক্ষীকে। পাশাপাশি সার্বিকভাবেই এ সমাজে নারী লাঞ্ছনার দিকেও আরেকবার ইঙ্গিত দিয়ে গেল এমন একটি ঘটনা।

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

প্যাথলজি সেন্টারে আল্ট্রাসোনোগ্রাফি করাতে আসা এক মহিলার কাছেই শৌচালয়ে রাখা ক্যামেরাটি ধরা পড়ে। তাঁর বর্ণনা অনুযায়ী – টয়লেটের কোনো এক কোণে ঝাঁটার আড়ালে ভিডিও ক্যামেরা অন অবস্থায় রাখা ছিল ওই মোবাইল ফোন। বাইরে এসে মহিলা তাঁর স্বামীকেও সেটা ডেকে নিয়ে গিয়ে দেখান। ফলে হাতেনাতে বিষয়টা ধরা পড়ে। সাথে সাথে শোরগোল পড়ে যায়।
কতদিন ধরে গোপনে এই ঘটনা ঘটে আসছে,  জানা ছিলনা কারো। আজ এই মহিলার চোখে হঠাৎ ধরা না পড়ে গেলে দিনের পর দিন তা ঘটেই চলত।
এমন ঘটনায় তীব্র উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়লেও প্যাথলজি সেন্টারের কর্ত়ৃপক্ষ কার্যত নীরব। তারা কোনোরকম দায় স্বীকার করেনি।

ফলে উত্তেজিত স্থানীয় বাসিন্দা ও উপস্থিত জনতা দায়িত্বপ্রাপ্ত নিরাপত্তা রক্ষীর ওপরেই চড়াও হয়েছে। ওই সেলফোন নিরাপত্তা রক্ষীর নিজের কিনা সেটা এখনও অবধি স্পষ্ট প্রমাণিত না হলেও ঘটনাক্রম তার দিকেই ইঙ্গিত করছে। তবে ঠিক কী কারণে ওই ব্যাক্তি টয়লেটে আসা মহিলাদের গোপনে ছবি তুলত? সে একা নাকি এর পিছনে আরও বড় কোনো গোপন চক্র আছে সেটা খতিয়ে দেখছে পুলিশ।

এতবড় একটা প্রতিষ্ঠানের কর্তৃপক্ষ এই দিনের পর দিন ঘটে চলা নির্লজ্জ অপরাধকর্ম সম্পর্কে সত্যিই কি কিছু জানেন না,  নাকি নিরাপত্তা রক্ষীকেই ঢাল হিসেবে সামনে এগিয়ে দিয়েছেন তারা? স্বচ্ছ তদন্তই তার হদিশ দিতে পারে।