আমাদের Telegram এ ফলো করুন সবার আগে সর্বশেষ আপডেট পান Click Here

Google News এ ফলো করুন Click Here

মুকুল রায়ের মতোই ভুলভাল বকছেন সব্যসাচী দত্ত, ইঙ্গিত করলেন দিলীপ ঘোষ : দল ছাড়ার লক্ষণ স্পষ্ট

Current India Features Politics

বিধাননগরের ইজেডসিসিতে এবার দূর্গাপূজো হচ্ছেনা । আর তাই সব্যসাচী দত্তর বিজেপি ছাড়া নিয়ে ইতিমধ্যেই জল্পনা শুরু হয়ে গেছে। কী ভাবছেন? দূর্গাপূজোর সঙ্গে বিজেপি ছাড়ার সম্পর্ক কোথায়? সেটা বিজেপি নেতা সব্যসাচীই জানিয়েছেন নিজেই।

স্কুল পালেনো দুষ্টু ছেলেদের মতোই এক পাল রাজনৈতিক নেতা তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। বলা বাহুল্য তাদের নেতৃত্ব দিয়েছিলেন মুকুল রায়। এবার মুকুল রায় যে কান্ডটি করে বসেছেন তা নিয়ে শুভেন্দু অধিকারী মশায়ের মাথার চুল খাড়া, বিধানসভার মাননীয় স্পিকার বিরক্ত  এবং রাজনৈতিক মহলে হট্টগোল।


যে মুকুল রায় তৃণমূল থেকেই নেতাদের ভাগিয়ে এনেছিলেন,  খোদ সেই মুকুলই সুবোধ বালকের মতো ফিরে গেছেন তৃণমূলে। এবার সেইসব নেতারা যাবেন কোথায়? একে একে ফেরার তোড়জোড় শুরু করছেন আরকি! এই সব্যসাচী দত্ত তাঁদেরই একজন।
বিধাননগরের ইজেডসিসিতে আগের বছর দুর্গাপূজো করেছিল বিজেপি। কেন্দ্রীয় মন্ত্রী কৈলাস বিজয়বর্গীয় ছাড়াও মুকুল রায়,  সব্যসাচী দত্ত ওই দুর্গাপুজোর দায়িত্বে ছিলেন।


এবার সেই পূজো বন্ধ কেন? এর উত্তর দিতে গিয়ে কথাপ্রসঙ্গে সব্যসাচী দত্ত সরাসরি বলে বসেছেন , “গতবার ভোট ছিল তাই পূজো হয়েছে। এবার ভোট নেই তাই পূজোও নেই!”


বিজেপি নেতার এই মন্তব্যই বিজেপিকে অস্বস্তিতে ফেলে দিয়েছে। দিলীপ ঘোষ সংবাদ মাধ্যমে এই অদ্ভুত উত্তরের পরিপ্রেক্ষিতে বলেছেন, “পুজোর বিধি মেনেই পুজো হওয়া উচিত। ভোট দেখে পূজো করা তো উচিত নয় বলেই জানি”। আসলে দিলীপবাবু সোজাসুজি না বললেও কথাগুলোয় যে অসংলগ্নতা আছে, সেটাই ইঙ্গিতে বুঝিয়ে দিয়েছেন।


স্বভাবতই প্রশ্ন উঠেছে দলের সাথে সংঘাত করতেই কি সব্যসাচী দত্ত এমন অদ্ভুত উত্তর দিয়েছেন! দিলীপ বাবু স্পষ্ট কোনো জবাব দিতে চাননি। তবে রাজনৈতিক মহলের বেশকিছু লোক পুজোপ্রসঙ্গে সব্যসাচীর এই অদ্ভুত উত্তর শুনে যারপরনাই অবাক হয়েছেন। কেউ কেউ মুুকুল রায়ের সঙ্গে মিলও খুঁজে পেয়েছেন।

তাহলে কি এবার তৃণমূলে ফিরতেই প্রস্তুতি নিচ্ছেন সব্যসাচী?  শরীর ঠিক আছে তো সব্যসাচীর? ঘটনাটা শুভেন্দু অধিকারী জানেন তো? এই প্রশ্নগুলোই বড় হয়ে দেখা দিচ্ছে।