VoiceBharat News 1633163457 mamata dhankar

গান্ধী জয়ন্তী উপলক্ষে ট্যুইটারে বার্তা দিতে গিয়ে সরাসরি মুখ্যমন্ত্রীকেই দুষলেন রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়।
এদিন ট্যুইট করে রাজ্যপাল বলেন, “গান্ধী জয়ন্তীতে আমাদের মনে রাখা উচিত তাঁর শান্তি ও অহিংসার নীতি বিশ্বজুড়ে কতটা বন্দিত। গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠা ও মানবাধিকার রক্ষা করতে মমতা সরকারের উচিত হিংসা ও ভয় দূর করা”।

রাজ্যপালের এই ট্যুইটের ফলে স্বভাবতই তৃণমূল শিবিরে শোরগোল পড়ে যায়। রাজ্যপালকে পাল্টা জবাব দিতেও ছাড়েনি তৃণমূল কংগ্রেস।
সংবাদ মাধ্যমে প্রতিক্রিয়া জানিয়ে তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক কুনাল ঘোষ বলেন, “রাজ্যপালের উচিত কেন্দ্রের বিভিন্ন রিপোর্ট পড়ে নেওয়া। তাহলেই দেখতে পাবেন অপরাধ দমনে ‘ডবল ইঞ্জিন’ সরকার কতটা ব্যর্থ, আর মমতা সরকার কতটা নিরাপদ”।

VoiceBharat News IMG 20211002 194617


প্রসঙ্গত, নিজেদের সরকারি কৃতিত্ব প্রকাশে প্রধানমন্ত্রী নিজেই ‘ডবল ইঞ্জিন’ শব্দটা প্রথম ব্যবহার করেছিলেন। সেই শব্দ ঠুকেই রাজ্যপালের বক্তব্যে হাতুড়ির ঘা মারলেন কুনাল ঘোষ। তিনি দাবি করে বলেছেন “রাজ্যপালের উচিত ওইসব রিপোর্ট সমেত ট্যুইট করা”।

রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের সঙ্গে মমতা ব্যানার্জীর সম্পর্ক ভালো নয়। বহুবার নানা ইস্যুকে কেন্দ্র করে বাংলায় সন্ত্রাসের প্রসঙ্গ তুলে পরোক্ষভাবে তৃণমূলের দিকে অভিযোগ তুলেছেন তিনি। বলা বাহুল্য তাতে বিজেপিও কিছুটা সুযোগ পেয়েছে। তৃণমূলও অকুণ্ঠ ভঙ্গিতে রাজ্যপাল ধনখড়কে ‘বিজেপির দলদাস’ বলে উল্লেখ করেছে বরাবর। আজ গান্ধী জয়ন্তীর দিন রাজ্যপালের সাথে তৃণমূলের সংঘাত আরও একবার জনসাধারণের সামনে এসে গেল।

VoiceBharat News Mamata Dhankaar

তবে আরও এক সংঘাত আসন্নপ্রায়। কেননা রাজভবন থেকে সম্প্রতি পাওয়া এক বার্তা অনুযায়ী এবার থেকে বিধায়কদের শপথ গ্রহণ করাবেন রাজ্যপাল। সাধারণত এই দায়িত্বটা রাজ্যপালের নির্দেশে বিধানসভার স্পিকারই করে থাকেন। তবে এবার থেকে রাজ্যপালই শপথ গ্রহণ করাবেন, এই নিয়ম বাধ্যতামূলক করা হবে বলেই খবরে প্রকাশ।


তৃণমূলে মমতা ব্যানার্জীকে তাঁর দল একরকম জিতিয়েই রেখেছেন প্রায়। এবার জিতলে ধনখড় বনাম মমতা সমীকরণটা ঠিক কেমন দাঁড়াবে, আজকের বিতর্ক সেই প্রশ্নটাকেও উস্কে দিল।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com