images-51

ফের লাদাখ সীমান্তে শক্তি বাড়চ্ছে চীন। পূর্ব লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর গতিবিধি বেড়েছে তারা। শনিবার লাদাখের একাধিক এলাকা পরিদর্শন করে সেনাপ্রধান জেনারেল এম এম নরবণে।তিনি  ইতিমধ্যে লেহ-তে গিয়ে   হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন।

চীনের সেনার গতিবিধি নজরে পড়তেই  নিজেদের সেনা মোতায়েন বাড়িয়েছে ভারত। প্রকৃত নিয়ন্ত্রণরেখা বরাবর কড়া নজরদারি বাড়ানোর কথা বলেছেন।তবে এবার বেজিংকে ফাঁক না দিয়ে  পাল্টা জবাবের জন‍্য ফন্দি করছে নয়াদিল্লি।  সেনাবাহিনী সূত্রে খবর পাওয়া যাচ্ছে ভারত ইতিমধ্যে পূর্ব লাদাখে প্রকৃত নিয়ন্ত্রণ রেখায় এই প্রথমবারের জন‍্য হাউইৎজার রেজিমেন্ট কে-৯ বজ্র (K9 Vajra)  মোতায়েন করেছে।এই কামান যা খুব সহজে ৫০ কিলোমিটার দূরে থাকা শত্রু ঘাঁটিকে নিশ্চিহ্ন করতে পারবে।

সেনাপ্রধান জেনারেল এম এম নরবণে সংবাদ সংস্থা এ এন আই কে বলেনপরীক্ষা নীরিক্ষাকরে দেখা হয়েছে এই কামান দুর্গম এলাকাতেও সাফল্যের সঙ্গে কাজ করতে পারবে।এবার গোটা রেজিমেন্ট মোতায়েন করা হয়েছে।তিনি এও বলেন যে কোনও কঠিন পরিস্থিতি মোকাবিলা জন‍্য প্রস্তুত ভারতীয় সেনা সর্বদা প্রস্তুত। ভারত আগামী সপ্তাহে চিনের সঙ্গে ১৩ দফার সেনাস্তরীয় বৈঠক করতে চলেছে।  সীমান্তে চিনের সেনা বাড়ানোয় সিঁদুরে মেঘ দেখছে সেনাপ্রধান।

২০২০জুন মাসে গালওয়ানের রক্তক্ষয়ী স্মৃতিই উসকে দিচ্ছে বারবার পূর্ব লাদাখ এর চিনা নির্মাণ ও আগ্রাসন।এই পরিস্থিতিতে চীন আবার কোনও যুদ্ধের ইঙ্গিত দিচ্ছে তা নিয়ে চিন্তায় রয়েছে সেনা।  কেন্দ্র ২০১৮ তে ভারতীয় সেনার হাতে কে ৯ বজ্র কামান।

এই অত্যাধুনিক হাউইৎজার কামান।গুজরাতে লারসেন অ্যান্ড টুবরো কমপ্লেক্সে তৈরি  করা হয়েছে। ৫৫ টন ওজন এই কামানটি  ৪৭ কেজি ওজন পর্যন্ত বোমা নিক্ষেপ করতে সক্ষম । চীনের আগ্ৰাসী নীতিকে প্রতিরোধ করতে ভারত সর্বদাই প্রস্তুত।