আমাদের Telegram এ ফলো করুন সবার আগে সর্বশেষ আপডেট পান Click Here

Google News এ ফলো করুন Click Here

bankura

শিশুপাচারে জড়িত স্কুল! অভিযোগ বিজেপি নেতার বিরুদ্ধেও

Current India Features Politics

কেন্দ্র সরকারের নির্মিত জওহর নবোদয় বিদ্যালয়ের উপর অভিযোগ শিশু পাচারের। এই কান্ডে জরিত ওই স্কুলের অধ্যক্ষ সহ আরো ৮ জন, স্কুলের ২ জন শিক্ষিকাও যুক্ত রয়েছেন এই কান্ডে। ওই অধ্যক্ষের সঙ্গে বাঁকুড়ার বিজেপি  সাংসদের মিল রয়েছে বলে অভিযোগ রাজ্যের মন্ত্রী শশী পাঁজা্র।

ঘটনা তদন্তে পুলিশ জানান, রবিবার বঁকুড়ার কালাপাথর এলাকায় ঘটে এই ঘটনা টি। ২ টি শিশু কে জোর পূর্বক করে মারুতি ভ্যানে তোলার চেষ্টা করে একজন। ঘটনা টি কোনো ক্রমে চোখে পড়ে স্থানিয় দের। তারা দেখেন ২টি শিশুকে জোর করে একটি মারুতি ভ্যানে তোলার চেষ্টা করছিলেন জওহর নবোদয় বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ কমল কুমার রাজোরিয়া। এর পরেই গাড়ি টিকে সবাই মিলে ঘেরাও করতে সেখান থেকে পালিয়ে যান অধ্যক্ষ কমল কুমার রাজোরিয়া।

এর আগেও বহুবার এরকম ঘটনা ঘটেছে বলে জানা গিয়েছে। পরে এই ঘটনার তদন্ত স্বার্থে জেরা করা হয় কমল কুমার রাজোরিয়া। তাঁকে জেরা করতেই জানা যায় কিছু অস্বাভাবিক তথ্য, জানা যায় দুর্গাপুরের মেনগেট অ কাদারোড থেকে শিশুদের কিনে নিয়ে এসে দেশের বিহিন্ন রাজ্যে পাচার করা হত। এর জন্য শিশুদের মাতা ও পিতাদের বেশ ভাল পরিমান টাকা দেওয়া হত।

মুখ্য তদন্তে পুলিশের অনুমান, নিঃসন্তান বাবা মায়েদের কাছে এই বাচ্ছাদের চড়া দামে বিক্রি করার জন্যই এরকম জাল ফেলেছিলেন জওহর নবোদয় বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ কমল কুমার রাজোরিয়া। সপ্তাহ খানেক আগেই একটি ৯ মাসের শিশু কে তার বাবা মায়ের কাছ থেকে আলাদা করে সেই বিদ্যালয়ের এক নিঃসন্তান থাকা শিক্ষিকার কাছে শিশুটিকে বিক্রি করে দেন বিদ্যালয়ের অধ্যক্ষ কমল কুমার রাজোরিয়া। এবং অন্যদুটি শিশু কেও ঠিক একই ভাবে বিক্রি করার জন্য নিজের কোয়ার্টারে এনে রাখেন তিনি।

তবে ঘটনার তদন্তে এখন পর্যন্ত ৫ টি শিশু কে উদ্ধার করেন পুলিশ, তবে তাদের মধ্যে কেউ কোনো যৌন নির্যাতনের শিকার হয়েছে কি না তা জানার জন্য মেডিকেল পরীক্ষার সিধান্ত নিয়েছেন পুলিশ। এর মধ্যে বাঁকুড়ার বিজেপি সাংসদের নামে অভিযোগ টি কত টা সত্য তা যাচাই করেনি (ভয়েস ভারতের টিম)। তবে পুলিশ নিজের তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে খুব শিগ্রই এই ঘটনার মূল অব্ধি পৌছানো যাবে বলে জানা গেছে।