কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304

‘শিশুসুলভ’ বিপ্লব দেবকে ভর্ৎসনা সুদীপের! দলের সমালোচনায় সোচ্চার বিজেপি বিধায়ক

Current India Features Politics

ত্রিপুরা রাজ্যে বিরোধীদল তৃণমূলের ওপর হামলার বিরুদ্ধে এবার মুখ খুললেন আগরতলার বিজেপি বিধায়ক সুদীপ রায়বর্মন। নিজের দলকে উদ্দেশ্য করে তাঁর বক্তব্য এই মূহুর্তে বিতর্কের ঝড় তুলেছে। নিরপেক্ষ অবস্থানে দাঁড়িয়ে দলের সমালোচনা করে চলতি রাজনৈতিক হাওয়ার বিপরীতে দৃষ্টান্ত তৈরি করে ফেলেছেন তিনি। সুদীপের সমালোচনাকে হাতিয়ার করতে চাইছে তৃণমূলও। সুদীপ অবশ্য বিজেপির ভেতরে অন্য হাওয়া খুঁজে পাচ্ছেন, দলের সমালোচনার মাধ্যমে সেটাই তুলে ধরতে চাইলেন।
মঙ্গলবার সংবাদ মাধ্যমের কাছে রাজ্যের বিজেপি সরকারের হঠকারিতা নিয়ে সোচ্চার হলেন বিজেপি বিধায়ক সুদীপ রায়বর্মন। নাম না করেই বিপ্লব দেবের উদ্দেশ্যে বলেছেন, “শিশুসুলভ নেতৃত্ব। আসল শত্রুকে চিনতে পারছেনা”।


কাকে আসল শত্রু হিসেবে চিহ্নিত করার কথা বলছেন সুদীপ? উত্তর নিজেই দিয়েছেন। তাঁর মতে, “সিপিএমের আমলের গুন্ডারা এখন বিজেপিতে। তারাই সন্ত্রাস করছে। আর এই গুন্ডারা দলে আসায় বিজেপির বদনাম হচ্ছে। ত্রিপুরার ভোটকে প্রহসনে পরিণত করছে”।

কম মুল্যে আপনার পন্যের বিজ্ঞাপন দিন অথবা খবরের মাধ্যমে প্রচার করুন আপনার ব্যাবসা, বিস্তারিত জানতে WhtasApp / Call 8585047304


উল্লেখ্য, সুদীপ রায়বর্মন ত্রিপুরায় তৃণমূল কংগ্রেস থেকেই বিজেপিতে যোগ দিয়েছিলেন। ফলে তাঁর এই আকস্মিক সমালোচনায় বিজেপি পুরোনো দলের মায়ার বাঁধনই লক্ষ্য করছে। সুদীপের আচরণে রীতিমতো অস্বস্তিতে বিজেপি। যদিও সুদীপ এর মধ্যে এতটুকু অন্যায় দেখছেননা। তিনি বলেছেন, “দলকে কেন অস্বস্তিতে ফেলব? আমি তো মানুষের হয়ে কথা বলছি। আমি সেইসব বিজেপি নেতাদের নিয়ে কথা বলছি যাঁদের বলার সাহস নেই”।


সুদীপ রায়বর্মন মানুষের পাশে, মানুষেরই স্বার্থে, এমনই এক নিরপেক্ষ অবস্থান থেকে নিজের দল বিজেপির ভালোর জন্যেই সমালোচকের ভূমিকায় অবতীর্ণ হয়েছেন। সেই জায়গা থেকেই তিনি বোঝাতে চান, এই মূহুর্তে ত্রিপুরা রাজ্যের বিজেপির কার্যকলাপ প্রধানমন্ত্রী এবং সার্বিকভাবে বিজেপি সম্পর্কে মানুষের মনে ভ্রান্ত ধারণা তৈরি করছে। একই সঙ্গে দল ছেড়ে অভিমান করে চলে যাওয়া নিষ্ঠাবান কর্মীদেরও ফেরানোর পরামর্শ দিয়েছেন তিনি। এর মধ্যে ‘আসল শত্রু’ গোছের ভূতুড়ে অস্তিত্ব তুলে ধরে দলের স্বচ্ছ ভাবমূর্তিতে খানিকটা স্বচ্ছতা আনার চেষ্টা করলেও, বিজেপি বিধায়কের বক্তব্যকে হাতিয়ার করেই সরব হয়েছে তৃণমূল। কুনাল ঘোষ ট্যুইট মারফত বলেন, “বিজেপির অন্যতম শীর্ষনেতা বিধায়ক সুদীপ রায়বর্মন ত্রিপুরার সন্ত্রাস ও গণতন্ত্রের হত্যযা নিয়ে যা বলেছেন, কথাগুলিকে স্বাগত জানাই…”। পাশাপাশি সুদীপকে উদাহরণ স্বরূপ দেখিয়েই বিজেপির দিকে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন কুনাল।


সুদীপ রায়বর্মনের বক্তব্যের সূত্র ধরে পশ্চিমবঙ্গের শিক্ষামন্ত্রী ব্রাত্য বসুও বলেছেন, “আজ ত্রিপুরার অভিজ্ঞ বিজেপি নেতা সুদীপ যা বলেছেন তাকে স্বাগত জানাচ্ছি। আসলে তিনি বলতে চেয়েছেন ত্রিপুরায় একটি গুন্ডার দল বিজেপি। আরও বলেছেন এই রাজ্য চলছে এক শিশুসুলভ নেতৃত্বে। মাথায় বসে আছে খোকা বিপ্লব, খুকু প্রতিমা। মানে খোকা-খুকির দল আসলে ডানপিটে, হার্মাদ এবং বজ্জাত। যেটা আমরা এতদিন বলছিলাম, সেটাই এখন সুদীপ বলছেন”।


বিজেপি বিধায়ক সুদীপ রায়বর্মন আচমকাই ত্রিপুরার রাজনৈতিক নৌকার পালে ঝোড়ো হাওয়া লাগিয়ে দিলেন, এখন সে রাজ্যের বিজেপি নেতৃত্ব তার কি প্রতিক্রিয়া দেন সেটাই দেখার।