VoiceBharat News IMG 20211117 181228

‘প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা-গ্রামীন’ প্রকল্পে ত্রিপুরার মানুষকে মোট ৭০০ কোটি টাকা পাঠালেন নরেন্দ্র মোদী। এর দ্বারা ত্রিপুরার ১.৪৭ লাখেরও বেশি মানুষ উপকৃত হবেন। নির্ধারিত টাকা সরাসরি উপভোক্তাদের অ্যাকাউন্টেই সাধারণত পাঠানো হয়।


স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূরণ উপলক্ষে কেন্দ্রীয় সরকারের লক্ষ্য ২০২২ সালের মধ্যে দেশের সব মানুষের মাথার ওপর পাকা ছাদ তৈরি করে দেওয়া। সেই লক্ষ্য সামনে রেখেই শুরু হয় ‘প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনা-গ্রামীণ’ । এবার ৭০০ কোটি বরাদ্দ টাকা পাঠিয়ে ত্রিপুরায় এই প্রকল্প শুরু করল কেন্দ্রীয় সরকার।

VoiceBharat News 1082651 pm awas yojana


টাকা পাঠানোর পর এক ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী তাঁর বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, “এই টাকা প্রদান ত্রিপুরার মানুষকে আরো উৎসাহিত করল। ত্রিপুরার মানুষ গরীব, এসব বলার মতো কোনও জায়গা আর ত্রিপুরায় নেই। এই রাজ্যে এখন ডবল ইঞ্জিনের সরকার স্বচ্ছতার সঙ্গে উন্নয়নের কাজ করে চলেছে”।

VoiceBharat News Narendra Modi


সারা দেশে সমমাত্রায় উন্নয়নের তুলনা টেনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী আরো বলেন, “আগে নদী দেশের পশ্চিম ও উত্তর থেকে পূর্বে আসত। কিন্তু উন্নয়নের নদী এখানে পৌঁছানোর আগেই থেমে যেত। খন্ড খন্ড ভাবে উন্নয়নের কাজ চোখে পড়ত। কিন্তু আজ সারা দেশ ‘এক ভারত, শ্রেষ্ঠ ভারত’-এর সাক্ষী। ত্রিপুরাও এর থেকে বাদ পড়েনি। আগে ত্রিপুরার মানুষ নিজেদের বঞ্চিত মনে করত, এখন আর সে অবস্থা নেই। উন্নয়নকে এখন অখন্ড দেশের সমার্থক বলে মনে করা হয়”।

VoiceBharat News images 3


এই যোজনায় পাকা বাড়ি বানাবার খরচ সাধারণত ৬০:৪০ অনুপাতে কেন্দ্র ও রাজ্য বহন করে থাকে। আর কেন্দ্রশাসিত রাজ্যে সম্পূর্ণটাই কেন্দ্র বহন করে। বিপিএল তালিকাভুক্ত পরিবারগুলির পাকা বাড়ি তৈরিতে অগ্রাধিকার, পাশাপাশি অন্যান্য কিছু সুবিধাও দেওয়া হয়। প্রধানমন্ত্রী নির্ধারিত এই যোজনায় বাড়ি তৈরির অনুমতি থাকে সর্বাধিক ২৫ বর্গমিটার জায়গায়। বাড়ির ভেতরে পাকা শৌচাগার, বিদ্যুৎ কানেকশন, জলের লাইন, এলপিজি গ্যাস ইত্যাদি সুবিধাও অন্তর্ভুক্ত।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com