375751-1

প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ ভারতীয় রেলে সফর করেন। টিকিট অনেকক্ষেত্রে কনফার্ম না হলেও, আরএসি থাকলে যাত্রীরা সেই টিকিট কেটেই রওনা হয়। পরে সিট কনফার্ম হলে ভালো, নাহলে অন্য যাত্রীর সাথে ভাগাভাগি করে নিতে। হয়। কিন্তু টিকিট কনফার্ম, অথচ ট্রেনের সেই কোচটিই নেই! এমন ঘটনা কস্মিনকালেও ঘটেছে কিনা সন্দেহ। যেমনটা সম্প্রতি ঘটল গীতাঞ্জলি এক্সপ্রেসে।


এসি কোচের টিকিট কেটেছিলেন বেশকয়েকজন যাত্রী। টিকিট কনফার্মও হয়েছিল। অথচ ট্রেনে চড়তে গিয়ে সকলে বেকুব বনে যান। টিকিট থাকলে হবে কি! যে কোচের টিকিট সেই কোচটাই যে নেই! মুম্বইগামী এই ট্রেনে তখনকার মতো উঠে খড়গপুর স্টেশন পর্যন্ত গিয়ে চরম বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন যাত্রীরা।

গত রবিবার দুপুরবেলায় হাওড়া থেকে মুম্বইগামী গীতাঞ্জলি এক্সপ্রেসে অদ্ভুত কারণে চরম হেনস্থার শিকার হলেন যাত্রীরা। এসি কোচের কনফার্ম টিকিট থাকলেও যে কোচের টিকিট সেই নির্দিষ্ট এসি কোচটাই বেমালুম উধাও।

এই যাত্রীদের মধ্যে মহিলা, শিশু এবং বয়স্ক সিনিয়র সিটিজেনরাও ছিলেন। যাঁদের পক্ষে এমন অনিশ্চিত পরিস্থিতিতে ট্রেনযাত্রা করা এককথায় অসম্ভব।

খড়গপুর স্টেশনে ট্রেন থামলে ওই যাত্রীরা নেমে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন , যা নিয়ে গোটা স্টেশনেই হইহল্লা বেড়ে যায়। অবশেষে যাত্রীদের ক্ষোভ প্রশমিত করতে সহযোগীর ভূমিকায় নামেন রেল কর্তৃপক্ষ। আলাদা একটি এসি কোচ জুড়ে তাতেই যাত্রীদের সফরের ব্যবস্থা করা হয়।
এমন অনিশ্চিত ঘটনা সচরাচর দেখা যায়না। কীভাবে এতবড় ভুলটা ঘটে গেল তা খতিয়ে দেখছে রেল কর্তৃপক্ষ।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com