VoiceBharat News IMG 20220222 153738

বাংলায় বাঙালির অধিকার। আর সেই দাবিতেই লড়াই চালায় বাংলা পক্ষ। ব্যাপারটাকে আরেকটু খোলসা করে বললে দাঁড়ায় ‘বাংলায় বাঙালির একচ্ছত্র অধিকারের জন্য নিরন্তর গুন্ডাগিরি করে চলেছে একটি হঠাৎ গজানো সংগঠন।’ এই মতামত একাধিক বাঙালিই পোষণ করছেন। এই আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে নিজেদের দলকে ‘বাঙালির বিএসএফ’ বলে আখ্যায়িত করেছেন ‘বাংলা পক্ষ’ দলের প্রতিষ্ঠাতা গর্গ চট্টোপাধ্যায়। সম্প্রতি এই বিতর্কেই উত্তেজিত নেটপাড়া।

VoiceBharat News images 2022 02 22T140639.208


বাংলা ভাষা নিয়ে, বাঙালির অধিকার নিয়ে কথা বলা ভালো কাজ, তবে এই কাজকে যারা আগ্রাসী ভূমিকায় নামিয়ে আনে তাদের মুখে অন্তত ‘আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের’ উল্লেখ মানায়না। কেননা ২১ ফেব্রুয়ারি দিবসটি কোনও একজন উচ্চ শিক্ষিত যুবকের ইউটোপিয়ান বাঙালি দুনিয়া স্থাপনের স্বপ্ন ছিলনা। ওই দিনটি নিজের ভাষাকে অন্য ভাষার আগ্রাসন থেকে বাঁচানোর জন্য স্মরণীয়, যেই দিনটা আজ আর শুধু বাঙালির মধ্যে সীমাবদ্ধ নেই। তার কারণ সত্যিকারের এই সংগ্রামে বুলেটের কাছে বুক পেতে দাঁড়াতে হয়। ‘বাংলা পক্ষ’-র হম্বিতম্বি করে লাইভ ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ায় ছেড়ে টপ ক্লাস লেকচার ঝাড়ার সাথে এর কোনও তুলনাই করা উচিত নয় বলে সচেতন মহলের একাংশ মনে করেন।

VoiceBharat News IMG 20220222 100713
‘অমর একুশে’ স্মরণ করে বাংলা পক্ষের ট্যুইট, “বাংলার চাকরি, বাজার, পুঁজি, জমি বাঙালীর দখলে আনার রাজনীতি ছাড়া ২১ শে ফেব্রুয়ারি হয়না। ২১শে ফেব্রুয়ারি কালচারাল প্রোগ্রাম নয়। ২১ ফেব্রুয়ারি রাজনৈতিক।”

এই কথাটি ‘বাংলা পক্ষ’ বলার আগে থেকেই বাংলার সচেতন বুদ্ধিজীবি মহল জানেন। তাঁদের মতে, ২১ ফেব্রুয়ারি যেমন নিছক কালচারাল প্রোগ্রাম নয়, তেমনই পেট্রোল পাম্পে গিয়ে গুন্ডাগিরিরও দিন নয়। এই দিবস টেবিল কাঁপানো রাজনীতি নয়, এটা সংগঠকদের থেকে আরো বেশি জানেন বাঙালিরা। উল্লেখ্য, বাংলা পক্ষের এই ট্যুইটকে কেন্দ্র করে নেটিজেনদের মধ্যে বাদানুবাদ লক্ষ্য করার মতো। যেখানে নিজেদের আগে ভারতীয় এবং তারপরে বাঙালি সেটা স্মরণ করিয়েছেন কেউ কেউ।

VoiceBharat News IMG 20220222 153434

‘বাঙালির বিএসএফ’ খ্যাত স্বনামধন্য এই সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা গর্গ চট্টোপাধ্যায় একটি সাক্ষাৎকারে বলেছেন, “বাংলার মাটি আমাদের পূর্ব পুরুষদের।” গর্গের নিশ্চয়ই জানা, বাংলা কোনও স্বয়ম্ভু ভাষা নয়। সংস্কৃত থেকে উদ্ভুত। পূর্বপুরুষ বলতে তিনি কোন প্রজন্মকে বুঝিয়েছেন?

মাতৃভাষা দিবসে যে বাংলাপক্ষ বলছে, “বিহারে একজন বিহারির যতটা অধিকার ততটাই বাংলায় বাঙালির অধিকার থাক। অন্যদিকে উত্তরপ্রদেশে বাঙালিদের যতটা অধিকার, এ রাজ্যেও বহিরাগতদের ততটাই অধিকার থাক।” সেই বাংলাপক্ষের সদস্যরাই জানুয়ারি মাসে একটি পেট্রোল পাম্পে ঢুকে হিন্দিভাষী মানুষদের বাংলা বলতে জোরজুলুম গুন্ডাগিরি চালিয়েছেন। প্রশ্ন, মহারাষ্ট্রে বা দিল্লীতে কি বাঙালিদের সাথে এমন আচরণ করা হয়? যদি না হয়, তবে ‘বাংলা পক্ষ’ তাদের শখের প্রতিবাদী ফান্ডা দেখানোর ফলে অন্য রাজ্যের বাঙালির সংকটের রাস্তাই প্রশস্ত করে দিচ্ছেন।

VoiceBharat News images 2022 02 22T140620.333

ইতিমধ্যে নেটিজেনদের একাংশ এই আচরণের বিরুদ্ধেই মত প্রকাশ করছেন, যাঁরা মনেপ্রাণে বাঙালি বলেই নিজেদের মনে করেন। ভারত বহুভাষাভাষি মানুষের দেশ। কোনো এক উচ্চশিক্ষিত, শখের রাজনীতিকের পূর্বপুরুষ এখানে তাঁর জন্য জমি কিনে রেখে যায়নি যে, গুন্ডাগিরি করে মানুষকে বাংলা বলতে বাধ্য করানো হবে। বাংলার ইতিহাসটা বাঙালি পড়লেই কাজে দেবে, এর জন্য কোনো উটকো তাত্ত্বিকের প্রয়োজন নেই। এমনটাই সচেতন মহলের একাংশ মনে করছেন।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com