VoiceBharat News IMG 20220410 193108 1

আন্তর্জাতিক রাজনীতিতে যুদ্ধের হাওয়া। ভারত গোড়া থেকেই শান্তির পক্ষে আওয়াজ তুলেছে। আমেরিকা-ইউক্রেন-রাশিয়া-রাশিয়া ত্রিমুখী শক্তির উদ্দেশ্যে যুদ্ধ বন্ধ করে কূটনীতিক সমাধানের রাস্তা বেছে নিতে পরামর্শ দিয়ে এসেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

VoiceBharat News images 2022 04 10T193018.916

পাশাপাশি এটাও ঠিক, যুদ্ধবিরোধী অবস্থান নিলেও আমেরিকার প্রস্তাবে রাশিয়ার বিপক্ষে ভোটও দেয়নি ভারত। ভারতের এই স্বকীয় অবস্থান বহুদিন ধরেই লক্ষ্য করে আসছিল মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এবার রাশিয়াকে সরিয়ে রেখে উল্টে ভারতের সাথে সম্পর্ক জোরালো করার স্ট্র্যাটেজিই নিল আমেরিকা।

 

হোয়াইট হাউজের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, আমেরিকা ভারতকে শক্তি আমদানিতে সাহায্যের হাত বাড়িয়েই রেখেছে। কেননা রাশিয়ার বিকল্প হিসেবে ভারতের সাথে আরো বেশি করে সুসম্পর্ক বজায় রাখতে চাইছে আমেরিকা। প্রেস সেক্রেটারি জেন সাকি বলেন, “আমরা মনে করিনা রাশিয়া থেকে ভারতের শক্তি বা অন্যান্য পণ্য আমদানি করা উচিত। আমেরিকা ভারতকে সাহায্য করতে প্রস্তুত। আমরা তাদের বিশ্বাসযোগ্য পণ্য সরবরাহকারী হিসেবে ভূমিকা পালন করতেই পারি।”

VoiceBharat News images 2022 04 10T192923.408
রাশিয়ার প্রতি একাধিক নিষেধাজ্ঞা জারি করা সত্ত্বেও ভারত রাশিয়ার দিকেই বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে রেখেছে বরাবর। পশ্চিমি দেশগুলির বিরোধীতার কবলে পড়ে রাশিয়া চাইছিল ভারতের বাজার। কম দামে বিপুল পরিমাণে রাশিয়ান ক্রুড অয়েল কেনার সিদ্ধান্তও তখনই প্রকাশ করেছিল ভারত।

VoiceBharat News images 2022 04 10T192855.276

আমেরিকা ভুরু কোঁচকালেও সরাসরি বিরোধে যেতে চায়নি। অনেক ভেবেচিন্তে এবার আড়াই চাল চেলেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। এমন একটি প্রস্তাব ভারতকে তারা দিয়েছে, যার ফলে উভয় সংকটে ভারত। কার দিকে ঝুঁকবে ভারত? রাশিয়া না আমেরিকা? অথবা দুদিকেই ব্যালান্স রেখে চলতে সক্ষম হবে? সেইদিকেই তাকিয়ে সচেতন মহল।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com