VoiceBharat News images 2022 01 18T215406.808

প্রখ্যাত লেখিকা তসলিমা নাসরিন ফেসবুকে বেশ সক্রিয়। নিজের অগনিত পঠকমহল, গুণগ্রাহী ও নিন্দুকদের সাথে জনসংযোগ রেখে চলেন ফেসবুকে। তবে সদ্য একটি ঘটনায় মাথা ঘুরে গেল নেটিজেনদের!
১৮ জানুয়ারি সন্ধেবেলা ফেসবুকে তসলিমা নাসরিনের ফেসবুক প্রোফাইলে ঢুকলেই দেখাচ্ছে ‘Remembering!’ তার মানে! সত্যিই মারা গেলেন নাকি তিনি? কখন কবে কোথায়?

VoiceBharat News IMG 20220118 201547


এমনি হাজারো প্রশ্নে দুরু দুরু বুকে টাইমলাইনে গেলে আরো ধন্দ বাড়বে। কেননা ঠিক একদিন আগেই স্ট্যাটাসে একটি দীর্ঘ লেখা লিখে পোস্ট করেছিলেন তসলিমা। সাহিত্যের পরিভাষায় যাকে ‘এপিটাফ’ বলা হয়ে থাকে, অনেকটা সেইরকমই লেখা। নিজের মৃত্যুকে তিনি কোন চোখে দেখেন, তারই ব্যাখ্যা দিয়ে লিখেছেন, “আমি চাই আমার মৃত্যুর খবর প্রচার হোক চারদিকে। প্রচার হোক যে আমি আমার মরণোত্তর দেহ দান করেছি হাসপাতালে, বিজ্ঞান গবেষণার কাজে। কিছু অঙ্গ প্রতিস্থাপনে কারও জীবন বাঁচুক। কারও চোখ আলো পাক। প্রচার হোক, কিছু মানুষও যেন প্রেরণা পায় মরণোত্তর দেহ দানে।”
এই পর্যন্ত পড়ে মনে হওয়া স্বাভাবিক, লেখিকা নিজেই কি তাঁর ‘মৃত্যু’ সম্পর্কে প্রচারের জন্যে Setting পরিবর্তন করে প্রোফাইলে অমন ভয়ানক কান্ডটি ঘটিয়েছেন। নাকি কোনো হ্যাকারের কাজ?

VoiceBharat News IMG 20220118 215129
সেটা ভাবতে সংশয় লাগে কেননা তসলিমা নিজেই পোস্টের কমেন্টে প্রত্যুত্তর দিচ্ছেন। এমনকি, এই নামের প্রোফাইল থেকে একাধিক memory-ও শেয়ার করেছেন লেখিকা নিজে।

পোস্টে তিনি আরো লেখেন, “অনেকে কবর হোক চান, পুড়ে যাক চান, কেউ কেউ চান তাঁদের শরীর পোড়া ছাই প্রিয় কোনও জায়গায় যেন ছড়িয়ে দেওয়া হয়। কেউ কেউ আশা করেন তাঁদের দেহ মমি করে রাখা হোক। কেউ আবার বরফে ডুবিয়ে রাখতে চান, যদি ভবিষ্যতে প্রাণ দেওয়ার পদ্ধতি আবিষ্কার হয়!”
তিনি আরো লেখেন, “অসুখ বিসুখে আমি আধুনিক চিকিৎসা বিজ্ঞানের ওপর নির্ভর করি এবং জীবনের শেষদিন পর্যন্ত করবো।”

অনেকেই জানেন বিতর্কিত মন্তব্যের কারণে মাঝে মাঝেই ফেসবুক তাঁকে কিছুদিনের জন্য নিষিদ্ধ করে দেয়। এটা কি তেমনই কোনো সিদ্ধান্ত? অথবা, iলেখিকা কি চেয়েছেন যে, জীবদ্দশাতেই ফেসবুক তাঁকে ‘মরণীয়’ রূপে স্মরণীয় করে তুলুক! এক্ষেত্রে যে তাই ঘটেছে। তসলিমা নাসরিনের ফেসবুক প্রোফাইল দেখে আঁতকে উঠছেন। হইচই পড়ে গিয়েছে নেটমাধ্যমে। কারণ প্রোফাইলে দেখাচ্ছে “We hope people who loved Taslima will find comfort in visiting her profile to remember and celebrate her life!” এটা তো মরণোত্তর স্মারক বার্তা।

VoiceBharat News 105705taslima
এই প্রমাদ ঘটল কীকরে? ইচ্ছাকৃত! নাকি অশরীরি আত্মার ছায়ারূপি হস্তক্ষেপ ! দুষ্টু হ্যাকারের কুচক্রান্ত! নাকি প্রযুক্তিনির্ভর ‘এআই'(Artificial Intelligence)-র কৃতিত্ব? যে কিনা ‘মৃত্যু’-র আলোচনা দেখেই  জ্যান্ত মেরে ফেলেছে! নেটিজেনরা আপাতত সেই দ্বন্দ্বেই রয়েছেন।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com