IMG_20220528_114151

ইরানের রেভল্যুশনারী গার্ডের একজন কর্নেলকে হত্যার জন্য অবশেষে আমেরিকার কাছে দায় স্বীকার করল ইসরায়েল। বুধবার নিউইয়র্ক টাইমসের এক রিপোর্ট এই তথ্য প্রকাশ করেছে।

নিহতের নাম কর্নেল সাইয়াদ খোদাই। ইনি এলিট কুদস বাহিনীর একজন উচ্চপদস্থ সদস্যও ছিলেন। আচমকাই ২ জন বন্দুকধারী মোটরবাইকে চেপে এসে কর্নেল খোদাইকে পরপর পাঁচটি গুলিতে ঝাঁঝরা করে দেয়।
বুধবারের আগে পর্যন্ত এই হত্যার দায় কেউ স্বীকার না করলেও অবশেষে এই খুনের কথা মেনে নিল ইসরায়েল।

ঘটনার সময় কর্নেল খোদাই তেহরানে তাঁর বাসভবনের কাছই নিজের গাড়ির মধ্যে ছিলেন। সেই অবস্থাতেই মোটরবাইকে চলমান ২জন এসে তাঁকে গুলি করেছিল বলে জানা যায়।

IMG_20220528_114209

২০২০ সালেও ইরানে একটি বড়সড় হত্যাকাণ্ড ঘটেছিল, তারপরে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার নিরাপত্তাভঙ্গ করে হত্যার ঘটনা ঘটল। ২০২০ সালে এক উচ্চস্থানীয় পরমাণু বিজ্ঞানী মোহসেন ফাখরিজাদেহকে অনেকটা এরকমই প্রক্রিয়ায় খুন করা হয়েছিল।

ইসরায়েল আমেরিকান কর্মকর্তাদের জানিয়েছে এই হত্যাকাণ্ড আসলে ইরানের কুদুস ফোর্সের কর্মপ্রক্রিয়া বন্ধ করার একটি সতর্কবার্তা।
ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রকের সচিব সায়িদ খতিবজাদেহ বলেছেন, ‘কর্নেল ইরানের ঘোরতর শত্রুদের হাতে নিহত হয়েছেন।’ এই শত্রুদের আন্তর্জাতিক মদদপুষ্ট সন্ত্রাসী গোষ্ঠী বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

এই হত্যাকাণ্ডের সংবাদ পাওয়ার পরেই ইরানের সরকারি গণমাধ্যমে জানানো হয়, ‘রিভল্যুশনারি গার্ড’ অভিযান চালিয়ে ইসরায়েলের গুপ্তচরদের একটা নেটওয়ার্কের সদস্যদের আটক করেছে। তারপরেই বুধবার এই হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করে নিল ইসরায়েল।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com