IMG_20220219_141249

পাঞ্জাব নির্বাচনের প্রাক্কালে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের অন্যতম সঙ্গী বৃহত্তর সংবাদমাধ্যমে যে তথ্যটি প্রকাশ করলেন তা বিস্ময়কর তো বটেই , এই তথ্য বা সাক্ষ্য দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রীকে তীব্র অস্বস্তির মুখে ফেলে দিয়েছে।


২০ তারিখ পাঞ্জাবে নির্বাচন। তার আগেই কেজরিওয়ালের একসময়ের ছায়াসঙ্গী কুমার বিশ্বাস সংবাদমাধ্যম এএনআইকে জানান, পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী কিংবা খলিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হতে চেয়েছিলেন তাঁর বন্ধু অরবিন্দ কেজরিওয়াল। মোটকথা একটি স্বাধীন রাষ্ট্রের একচ্ছত্র ক্ষমতা হাতে পেতে বেশি উৎসাহী ছিলেন তিনি। এই সাক্ষ্যে অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বিচ্ছিন্নতাবাদী ভাবমূর্তি প্রকট হয়েছে যা তার রাজনৈতিক কেরিয়ারেও ছাপ ফেলতে পারে বলে মনে করছে একাংশ।


এই কুমার বিশ্বাস পরিচিত একজন কবি এবং আম আদমি পার্টির প্রতিষ্ঠার সাথে সক্রিয়ভাবে যুক্ত ছিলেন। তিনিই কেজরিওয়ালের নাম করে বলেন, “উনি একদিন আমায় বলেছিলেন যে, হয় পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রী বা একটি স্বাধীন রাষ্ট্র খলিস্তানের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হবেন।”

কুমার বিশ্বাস আরো বলেন, “অরবিন্দ কেজরিওয়ালের বোঝা উচিত যে পাঞ্জাব শুধু একটি রাজ্য নয়, এটা একটা আবেগ, অনুভূতির বিষয়। আমি তাকে আগেই বলেছিলাম বিচ্ছিন্নতাবাদীদের ও খলিস্তানি সংগঠনের সাথে যুক্ত লোকজনকে সঙ্গে না নিতে। কেজরিওয়াল বলেছিলেন ও কিছু না, সব ঠিক হয়ে যাবে।”

কুমার বিশ্বাসের এই জবানি শুনে মনে হতে পারে কেন তিনি সঙ্গী কেজরিওয়াল সম্পর্কে কথা ফাঁস করছেন! তাহলে একটু পিছনে ফিরে তাকাতে হবে। আসলে আন্না হাজারের আন্দোলন চলাকালীন কবি কুমার বিশ্বাস এই আন্দোলনে যুক্ত হন, তখনই কেজরিওয়ালের সাথে তাঁর আলাপ হয়। এরপর একসাথেই তাঁরা আম আদমি পার্টির প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। সংঘাত শুরু হয় দিল্লীতে আপ সরকার ক্ষমতায় আসার পর। বিভিন্ন কারণে মতভেদ থেকে কুমার বিশ্বাস ধীরে ধীরে পার্টি থেকে সরে যেতে থাকেন। আর এবার কেজরিওয়ালের ভাবমূর্তির অন্য একটি দিক প্রকাশ্যে আনলেন আচমকাই!

তিনি অরবিন্দ কেজরিওয়ালের খলিস্তান সমর্থনের উল্লেখ করে জানান, “আমি তাকে বারণ করেছিলাম, বলেছিলাম এটা বিচ্ছিন্নতাবাদ। কিন্তু তিনি বলেছিলেন, চিন্তা কোরোনা, আমি একদিন স্বাধীন রাষ্ট্রের প্রধানমন্ত্রী হবো।” কুমার বিশ্বাসের জোরালো দাবি, “এই মানুষটির চিন্তায় প্রচুর বিচ্ছিন্নতাবাদ রয়েছে। উনি শুধু কোনোভাবে ক্ষমতা পেতে চান।”
কুমার বিশ্বাসের এই বক্তব্য দিল্লীর মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়ালের ভাবমূর্তিতে আরো একটি দাগ ফেলে দিল বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com