VoiceBharat News IMG 20220417 145522

আসানসোল নিয়ে প্রচারে অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় একটু ট্যুইস্ট দিয়ে বলেছিলেন, ‘এখানে আমরা কখনও জিতিনি, তবে এবার জিতব।’ অভিষেকের ইঙ্গিত ছিল বাবুল সুপ্রিয়কে লক্ষ্য করে। তৃণমূলের মতে বিজেপি নয়, আসানসোলের আসনটা ছিল বাবুলের। সেই বাবুলই যখন তৃণমূলে তখন তৃণমূলকে আর কে ঠেকায়! সত্যিই ঠেকানো যায়নি। শুধু তাই নয়, বাবুলের রেকর্ড ব্রেক করে প্রায় দ্বিগুণ বেশি ভোট পেয়ে আসানসোলের আসন দখল করে নিলেন শত্রুঘ্ন সিনহা।

VoiceBharat News images 2022 04 17T144758.986


গোটা নির্বাচনের প্রচারবার্তায় তৃণমূল প্রার্থী শত্রুঘ্ন সিনহাকে গেরুয়া শিবিরের কটাক্ষের সাথে লড়তে হয়েছে। একে তিনি বিজেপি থেকে আগত, তায় আবার ‘বহিরাগত’। জবাবের পর জবাব দিয়ে তিনি বোঝাতে চেয়েছেন বহিরাগত হলেও ‘আমাকে সারা ভারত চেনে।’এমনকি প্রধানমন্ত্রীও তাঁর তুলনা থেকে বাদ যাননি। ভোটে বিপুল সাফল্যই সেই জবাবকে মান্যতা দিল।

আসানসোলের ভোটে জিতেই শত্রুঘ্ন সিনহা আগামী লোকসভা ২০২৪-এ পালাবদলের ইঙ্গিত দিতে শুরু করেছেন। সেই সঙ্গে তাঁর স্পষ্ট বক্তব্য, “মমতাই এদেশের সবচাইতে জানদার, শানদার, জানদার নেত্রী।”

VoiceBharat News 1650103158 mamata satrugna
আসানসোলে এই জয় কি শত্রুঘ্ন সিনহার কাছে প্রত্যাশিতই ছিল? নাকি শুধুমাত্র বাবুল সুপ্রিয় সরে যাবার কারণেই আসানসোলের উপনির্বাচনে পালাবদল? প্রতিক্রিয়ায় কী বললেন তিনি? শত্রুঘ্নর দমদার জবাব, “বিজেপি এবারে এখানে ইভিএমের খেলা দেখাতে পারেনি। স্বচ্ছ ভোট হয়েছে। ভয় বা পক্ষপাতিত্ব ছিলনা। সেটা সবাই লক্ষ্য করেছেন। তারই ফল মিলেছে।”

ফলাফলও কিন্তু সেইদিকেই ইঙ্গিত করেছে। ২০১৯ সালের লোকসভা নির্বাচনে বিজেপির হয়ে প্রায় ১ লক্ষ ৯৮ হাজার ভোটে জিতেছিলেন বাবুল সুপ্রিয়। সেখানে এই উপনির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে শত্রুঘ্ন সিনহা প্রায় ৩ লক্ষ ভোটে জয়ী হয়েছেন! পাশাপাশি শত্রুঘ্ন বারবার বলতে চেয়াছেন এই জয় আসলে মমতা দিদির জয়। ২০২৪-এ গোটা দেশের পালাবদলের আগাম ইঙ্গিত দিয়ে শত্রুঘ্ন সিনহা বলেছেন, “মমতাই দেশের সবচাইতে জনপ্রিয় নেত্রী।”

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com