VoiceBharat News IMG 20220227 121214

দাদা তো শুধু একটা নাম নয়! দাদা যে দেশের জন্য শহীদ হয়েছিলেন। আর দিল্লীর ‘ন্যাশন্যাল ওয়ার মেমোরিয়াল’-এ সেই দাদার নাম দেখতে পাবেন, এতটা অপ্রত্যাশিতই ছিল। দেখামাত্রই আবেগে ভাসলেন শহীদের বোন শগুন। আর সেই আবেগরুদ্ধ দৃশ্যই ছড়িয়ে পড়ল নেটমাধ্যমে।

VoiceBharat News IMG 20220227 115334


স্বামীর সাথে দিল্লীতে এসেছিলেন শগুন। কনট প্লেসে ঘুরতে ঘুরতে এমনিই স্বামীকে বলেন, “দিল্লী যখন এলামই চলো ন্যাশনাল ওয়ার মেমোরিয়ালটা একবার দেখে যাই।”
সেই কথামতোই ঘুরে দেখতে যাওয়া।
ভারতের জন্য যুদ্ধে প্রাণ বিসর্জন দেওয়া সেনাদের স্মৃতিতেই দিল্লীতে ‘ন্যাশনাল ওয়ার মেমোরিয়াল’ স্থাপন করিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

VoiceBharat News images 2022 02 27T115108.341
ওই জাতীয় স্মারকে চোখ রেখে দেখতে দেখতেই হঠাৎ স্বামীকে ডাকতে শুরু করলেন শগুন। স্বামীর কথা অনুযায়ী, “ওই স্মৃতিস্মারকে ক্যাপ্টেন বিজয় বাত্রা এবং মেজর অজয় সিং জায়রোতিয়ার ছবি তুলছিলাম আমি। আমার থেকে কিছুটা দূরেই দাঁড়িয়ে স্মারকে চোখ বোলাচ্ছিল শগুন। হঠাৎই ও চিৎকার করে আমায় ডাকতে শুরু করে। কী হয়েছে জানতে কাছে গিয়ে দেখি শগুনের চোখ থেকে জল গরিয়ে পড়ছে।”

আবেগে শগুনের মুখ থেকে ভাষা সরছিলনা। শুধু মেমোরিয়ালের দিকে আঙুল তুলে দেখিয়ে বলেন, “দেখেছ! ওখানে দাদার নাম লেখা রয়েছে!”
শগুনের স্বামী এবার অনেকগুলো নামের মধ্যে সোনালি অক্ষরে মুদ্রিত নাম দেখতে পান — কে.ডি.সাম্বাল। জ্বলজ্বল করছে সেই নাম। আর দাদার সেই নামের প্রতিফলনেই উদ্ভাসিত হয়ে উঠেছে বোন শগুনের সারা মুখ। দুচোখ ভরে উঠেছে জলে।

VoiceBharat News images 2022 02 27T115121.154
জম্মু-কাশ্মীরের সাম্বার অধিবাসী কে.ডি.সাম্বাল ১৯৩ নম্বর ফিল্ড রেজিমেন্টের জওয়ান ছিলেন। ভারতের জন্য প্রাণ দিয়েছিলেন যুদ্ধে। সেই স্মৃতি আজও পরিবারকে আবেগতাড়িত করে। তবে শগুন কল্পনা করতে পারেননি জাতীয় মেমোরিয়ালে এইভাবে সোনালি অক্ষরে দাদার নাম মুদ্রিত দেখবেন। দেশ তাঁকে ভোলেনি, স্মৃতিকে খোদাই করে অমর করে রেখেছে দেখে আবেগ সামলাতে পারেননি বোন। এই ঘটনায় তারই বহিঃপ্রকাশ।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com