mathura_1200x768

জ্ঞানব্যাপী মসজিদের বিতর্ক নিভে আসার আগেই মথুরার শাহি ইদগাহ মসজিদে নামাজ পড়া বন্ধের জোরালো দাবি উঠল। অভিযোগকারী আইনজীবিদের বক্তব্য, বর্তমানে যেখানে শাহি ইদগাহ মসজিদ রয়েছে, সেটা ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মস্থান ছিল। এই মর্মে একটি পিটিশন দিয়ে বলা হয়েছে –শ্রীকৃষ্ণের জন্মস্থলে নামাজ পড়া বন্ধ হোক।

কিছু আইনজীবী এবং আইনের ছাত্রছাত্রী মিলিতভাবে এব পিটিশন দাখিল করেছে। তবে এই প্রথম নয়, শ্রীকৃষ্ণের জন্মস্থলে নামাজ বন্ধের দাবিতে হিন্দুসংগঠনগুলি ইতিমধ্যেই ১০টি পিটিশন জমা দিয়েছিল।

শাহী ইদগাহ মসজিদে নামাজ পড়া বন্ধের দাবিই শুধু নয়, ওই স্থান থেকে মসজিদ অন্যত্র সরিয়ে নেবারও দাবি উঠেছে। উল্লেখ্য, মসজিদের পাশেই একটি হিন্দু মন্দির, কেশব দেব মন্দিরও রয়েছে।
পিটিশন দাখিলকারী আইনজীবী শৈলেন্দ্র সিং বলেন, ”হিন্দু মন্দিরের অবশিষ্টাংশের উপর মসজিদের কাঠামো নির্মাণ করা হয়েছে। ফলে এটি মন্দির।”

আদালতে দেওয়া আবেদনপত্রের বয়ান অনুযায়ী, হিন্দু সম্প্রদায়ের বেশিরভাগ মানুযই বিশ্বাস করেন, যেখানে শাহী ইদগাহ মসজিদ রয়েছে, আসলে সেটি ভগবান শ্রীকৃষ্ণের জন্মস্থান। মামলার শুনানি ২৫ মে ধার্য করেছে আদালত।
প্রসঙ্গত, উত্তরপ্রদেশের জ্ঞানব্যাপী মসজিদে শিবলিঙ্গ উদ্ধারের মামলায় সংবেদনশীলতার দিকে জোর দিয়েছে আদালত। সেই রায়ে বলা হয়েছে, ‘যদি শিবলিঙ্গ পাওয়া গিয়ে থাকে তবে শিবলিঙ্গ সুরক্ষিত করুন। নামাজ বন্ধ করা চলবেনা।’

জেলাশাসক, পুলিশ কমিশনার এবং সিআরপিএফের তত্ত্বাবধানে জ্ঞানবাপী মসজিদের সিল করা এলাকাটি এইমূহুর্তে রক্ষিত আছে। যদিও একাংশ দাবি তুলেছেন জ্ঞানবাপী মসজিদে শিবলিঙ্গ দয়, ফোয়ারা পাওয়া গিয়েছে। বিতর্কিক বিষয়টির পরবর্তী শুনানি ১৯ মে তারই মধ্যে মথুরার শাহী ইদগাহ মসজিদ আরেকটি নতুন বিতর্ক তৈরি করে দিল।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com