images - 2022-04-27T131948.399

ট্রেনে সফরকালে অনেকেই কিছু কাজ না জেনে, কখনও আবার জানাসত্ত্বেও গোপনে করে থাকেন। তবে এই কাজগুলি ধরা পড়লে বড়সড় শাস্তি হতে পারে। সেব্যাপারেই বারংবার সতর্ক করেছে রেলকর্তৃপক্ষ। আসুন আরেকটিবার জেনে নেওয়া যাক,  কোন কাজগুলি রেলওয়ে নিষিদ্ধ বলে বিবেচনা করে।


অনেকে মনে করতেই পারেন, আমি তো টিকিট কেটেছি অতএব আমার যাতায়াত অবাধ ও স্বচ্ছন্দ। মোটেই তা নয়। ট্রেন যেহেতু প্রাইভেট ট্রান্সপোর্ট নয়, সুতরাং সার্বিকভাবে কিছু নিয়মকানুন প্রযোজ্য থাকে। সেই নিয়মগুলি লঙ্ঘন করলে তার জন্য কতটাই বা খেসারত দিতে হতে পারে, জেনে রাখা দরকার।

কতকগুলি বিশেষ জিনিসপত্র ট্রেনে বহন করা নিষিদ্ধ। তার মধ্যে কিছুটা হয়তো সকলেই জানেন, আবার একটি দুটি জিনিস সম্পূর্ণ অজানা। সেই জিনিসগুলি ট্রেনে নিয়ে যাওয়া শুধু নিষিদ্ধ নয়, আইনত দন্ডনীয় অপরাধ। আপাতদৃষ্টিতে সাধারণ মনে হলেও, ধরা পড়লে ৩ বছরের জেল বাঁধা।


ভারতীয় রেলে প্রত্যেকদিন কয়েক  লাখ যাত্রী সফর করেন। তাই রেলকে ‘ভারতের লাইফলাইন’ বলা হয়ে থাকে। তাই এত সংখ্যক যাত্রীদের সুরকার জন্য নিয়ম তো থাকতেই হবে। যাত্রীদের সফর যাতে নিরাপদ ও আনন্দপূর্ণ হয়, মাত্র একজনের সামান্য ভুল যাতে প্রচুর সংখ্যক মানুষের ক্ষতি ডেকে না আনে তাই নিম্নলিখিত জিনিসগুলি বহন করার বিরুদ্ধে কঠোর নিষেধাজ্ঞা রয়েছে।

যেকোনও ধরনের দাহ্য পদার্থ, পেট্রোল, আতসবাজি ও গ্যাস সিলিন্ডারের মতো মারাত্মক জিনিস নিয়ে ট্রেনে সফর করা নিষিদ্ধ মোটামুটি সকলেই জানেন। এছাড়াও ট্রেনে সফরকালে ও রেলওয়ে চত্বরে শুকনো ঘাস,কেরোসিন, দেশলাই  বহন করাও নিষিদ্ধ। নিষেধাজ্ঞা অমান্য করলে রেলওয়ে আইন ১৯৮৯ এর ধারা ১৬৪ এর অধীনে ব্যবস্থা নেওয়া হতে পারে। সেক্ষেত্রে ধৃত যাত্রীর ৩  বছরের জেল ও ১০০০ টাকা পর্যন্ত জরিমানা হতে পারে। ট্রেনে ধূমপান করলেও যাত্রীদের ৩ বছরের জেল বা জরিমানা, অথবা দুটোই হতে পারে।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com