IMG_20220110_132303

১৮৯৮ সালে ব্রিটিশ ভারতের প্রাথমিক পরিকল্পনা এইবার ১২৪ বছর পরে বাস্তবায়িত হতে চলল। বিশ্বের সবথেকে উঁচু সেতু ভারতেই নির্মিত হবার পথে।

এই মূহুর্তে চীনেই বিশ্বের সর্বোচ্চ রেলসেতুটি রয়েছে। ভারতের সেতুটি নির্মিত হতে চলেছে কাশ্মীরে, যেটি সফলভাবে নির্মাণ করলে বিশ্বের সর্বোচ্চ সেতুর শিরোপা পাবে। উচ্চতা এবং দৈর্ঘ্যেই শুধু নয়, শক্তপোক্ত গঠন ক্ষমতার দিক থেকেও সেতুটির বৈশিষ্ট্য হবে সেরা।


ভারতের রেলমন্ত্রকের সূত্র অনুযায়ী, এই সেতুটি শ্রীনগরের কাউরি থেকে কাটরার বক্কালের সাথে সংযুক্ত হবে। ১৩১৫ কিলোমিটার দীর্ঘ এই সেতু তৈরি করতে আনুমানিক খরচ ১১০০ কোটি টাকা!

বিখ্যাত আইফেল টাওয়ারের উচ্চতাকেও ছাপিয়ে এই সেতুটির উচ্চতা হতে চলেছে ৩৫৯ মিটার। ২৪,০০০ টন ইস্পাত দিয়ে গঠন করা হবে এই সেতু। তবে কাশ্মীর নামটি শুনে এতক্ষণে অনেকেরই হয়তো হৃৎকম্পন বেড়ে গিয়েছে, বিশেষত যেখানে জঙ্গি হানা লেগেই রয়েছে। চিন্তা নেই, সবরকম প্রতিকূলতার সাথে লড়াই করার মতো করেই এর গঠনকাঠামো নির্মিত হচ্ছে বলেই এক আন্তর্জাতিক সংবাদসংস্থাকে জানিয়েছে নর্দান রেল কর্তৃপক্ষ। সেই বিশেষত্বগুলি চট করে জেনে নেওয়া যাক।


ভারতের এই সেতু নির্মাণ করা হচ্ছে এমনই পদ্ধতিতে, যাতে মাইনাস ২০ ডিগ্রী উষ্ণতা এবং ঘন্টায় ২৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড় হলেও এই সেতু অবিচল থাকতে পারে। এছাড়াও থাকছে সেন্সর লাগানো বিশেষ সিগন্যালের ব্যবস্থা। ঘন্টায় ৯০ কিলোমিটারের বেশি গতিতে ঝোড়ো হাওয়ার আভাস পেলেই রেড সিগন্যাল অ্যালার্ট চালু হয়ে যাবে। আর জঙ্গিহামলার সম্ভাবনা মাথায় রেখে বিস্ফোরণ প্রতিরোধকারী ২.৪৮ ইঞ্চি মোটা বিশেষ ইস্পাত দিয়ে তৈরি হচ্ছে এর থাম ও গঠনকাঠামো। এছাড়াও সেতুটি নির্মিত হলে বায়ুপথে ওপর থেকে নজরদারির ব্যবস্থা তো থাকবেই।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com