IMG_20211219_153240

গত বুধবার বাংলার দুর্গাপূজোকে হেরিটেজ স্বীকৃতি দিয়েছে বিশ্বসংস্থা UNESCO. শুধু তাই নয় দুর্গাপূজোকে ‘মানবতার অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ’ বলেই আখ্যা দিয়েছেন তাঁরা। এবার সেই স্বীকৃতি নিয়েই রাজনীতির অঙ্গনে শুরু হল জোর তরজা। অমিত শাহকে আক্রমণ করে ট্যুইট মারফত আক্রমণ শানালেন অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়।

প্রসঙ্গত বুধবারই UNESCO-র স্বীকৃতির খবরে বেহালার এক নির্বাচনী প্রচারসভায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় উচ্ছসিত হয়ে ওঠেন। “আগামী দুর্গাপুজোয় স্পেশাল উৎসব হবে” বলেও ঘোষণা করে দেন।
বাংলার দুর্গাপূজোর সেরা স্বীকৃতির উল্লেখ করতে গিয়ে বলেন,” আমার গায়ে কাঁটা দিচ্ছে! আমাদের দুর্গাপূজো বিশ্বে বন্দিত, বিশ্বসেরা। কেউ কেউ বলত মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দুর্গাপূজো করতে দেননা। এবার তাঁদের মুখে চুনকালি পড়ল।”

বলা বাহুল্য মমতার ইঙ্গিতকারী এই ব্যক্তি হলেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। যিনি বলেছিলেন, পশ্চিমবঙ্গে দুর্গাপূজো বন্ধ হয়ে যাবে। এর জবাবেই অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায় ট্যুইট করে বলেন, “অমিত শাহ এবং বিজেপি নেতাদের জন্য ২ মিনিটের নীরবতা। যাঁরা ভোটের আগে রাজনৈতিক পর্যটনে এসে দাবি করেছিলেন পশ্চিমবঙ্গে পূজো বন্ধ হয়ে যাবে। ধর্মান্ধতা ও গুজব ফাঁস হয়ে গেছে। ”


শুধু অভিষেক নয়, এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও ট্যুইট করে লেখেন,”বাংলার জন্য গৌরবের মূহুর্ত। দুর্গাপূজো শুধু উৎসব নয়, বিশ্বের সমস্ত বাঙালির কাছে দুর্গাপূজো এমনই এক আবেগ যা সকলকে ঐক্যবদ্ধ করে। এবার সেই দুর্গাপূজো মানবতার অবিচ্ছেদ্য ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান পেল। আমরা সবাই আনন্দে উজ্জ্বল।”

প্রসঙ্গত, এই খবরে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ট্যুইটার হ্যান্ডেল থেকেও শুভেচ্ছা বার্তা জানানো হয়েছিল। কিন্তু সেই ট্যুইটের খটমট বাংলা ভাষাকে ‘ভয়ঙ্কর’ বলে কটাক্ষ করে তৃণমূলের অফিসিয়াল ট্যুইটার হ্যান্ডেলে রিট্যুইট করা হয়,”মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, দয়া করে প্রথমে বাংলা ভাষাটা শিখুন!”

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com