IMG_20220527_131457

মেয়রকে মুখ্যমন্ত্রীর একটু শাসন, একটু আব্দার ‘আমার কেন্দ্রে জল জমলে আমি কিন্তু তোকে ধরব!’
আসলে জলের সমস্যার দূর করতে সম্প্রতি বহু অর্থব্যয়ে দক্ষিণ কলকাতায় দুটি বৃহত্তর প্রকল্প চালু করা হয়েছে। মেয়র ফিরহাদ হাকিম ববির কেন্দ্র গার্ডেনরিচে নতুন ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট এবং সেইসঙ্গে আলিপুরের জলনিকাশি সমস্যা দূরিকরণে নতুন ড্রেনেজ পাম্পিং স্টেশন।


বৃহস্পতিবার সেই প্রকল্পদুটির ভার্চুয়াল উদ্বোধনেই নবান্নে বসে ববির সাথে কথা বললেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। গার্ডেনরিচের শুদ্ধ পানীয় জলের অব্যবস্থা দূর করতে ৮৮ কোটি টাকা খরচ করে তৈরি করা হলো ২৫ মিলিয়ন গ্যালনের নতুন ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট। এর ফলে পুরোনো ১৮৫ মিলিয়ন গ্যালন ওয়াটার ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্টটি বেড়ে ২১০ মিলিয়ন গ্যালন হল। গার্ডেনরিচের পানীয় জলের ব্যবস্থা এর মাধ্যমে আরো উন্নত হবে বলে এলাকাবাসী মনে করছেন।

ওদিকে আলিপুর সম্পর্কে একটা চালু প্রবাদ আছে, জল জমলেই নৌকা নামাতে হয়। বাস্তবচিত্রও ছিল অনেকটা তাই। এবার সেই সমস্যা দূর করতে মেয়র ফিরহাদ হাকিম ববির উদ্যোগে তৈরি হলো অত্যাধুনিক ড্রেনেজ পাম্পিং স্টেশন। এই প্রকল্পের জন্য খরচ হয়েছে ৪০ কোটি টাকা।

এদিন প্রকল্পদুটির উদ্বোধনে মৃদু প্রশংসা এবং শাসন মেশানো আব্দার করে মেয়রের উদ্দেশ্যে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, “ববি, নিজের কেন্দ্রে অনেক বেশি খরচ করেছিস। তা ভাল, অনেক মানুষের উপকার হবে। আমার কেন্দ্রটাও দেখিস। একবালপুরে জল জমলে কিন্তু আমি তোকে ধরব!”


তবে আক্ষরিক অর্থেই গার্ডেনরিচ ও আলিপুরের বিস্তীর্ণ অঞ্চলের মানুষজন এর দ্বারা ব্যাপক উপকৃত হবেন বলেই আশ্বাস দিয়েছে কলকাতা পুরসভা। ববি হাকিমের বক্তব্য, “এর ফলে দক্ষিণ কলকাতার বিস্তীর্ণ এলাকার মানুষ উপকৃত হবেন।”

শুধু নিকটস্থ এলাকাই নয়, গঙ্গা থেকে তুলে গার্ডেনরিচ ওয়াটার প্ল্যান্টের মাধ্যমে পরিশুদ্ধ পানীয় জল বেহালা, টালিগঞ্জ, কালীঘাট, ভবানীপুর, ঢাকুরিয়াতেও যায়। সুতরাংদক্ষিণ কলকাতার বহু মানুষ এই প্রকল্পের প্রশংসা করছেন।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com