pro (6)

তিনি বেঁচে নেই। কিন্তু তাঁর বলে যাওয়া ভবিষ্যদ্বাণী আশ্চর্যভাবে মিলে যেতে দেখেছে বিশ্ববাসী। ৯/১১-র ভবিষ্যদ্বাণী তিনি আগেই করেছিলেন। পরে তা হুবহু মিলে গিয়েছে। তিনি অন্ধ এবং একজন সাধিকা ছিলেন। সম্পূর্ণ নাম ভাঙ্গেলিয়া পানডেভা গুশতেরোভা। তবে বাবা ভাঙ্গা নামেই তিনি অধিক পরিচিত। ইনিই এক আশ্চর্য ভবিষ্যৎবাণী ঘোষণা করে গিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন সম্পর্কে, যা জানলে রীতিমতো তাক লেগে যাবে।


১৯৯৬ সালে এই অন্ধ সাধিকার মৃত্যু হয়। বাইরের দুনিয়াটাকে চাক্ষুষ দেখতে না পেলেও তাঁর ভবিষ্যত দেখার একটি অলৌকিক ক্ষমতা ছিল, সেই বাবা ভাঙ্গা আরো একবার আলোচনার শিরোনামে উঠে এসেছেন পুতিন সম্পর্কে তাঁর করে যাওয়া ভবিষ্যদ্বাণী প্রসঙ্গে।

তাঁকে নিয়েই এইমূহুর্তে নেটদুনিয়া তোলপাড়।
ফেব্রুয়ারি মাসের শেষের দিকে শুরু হয়েছিল রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ। ১ মাস অতিক্রান্ত, তবুও যুদ্ধ চলেছে। বিশ্বের এক বৃহত্তর অংশ চলে গিয়েছে রাশিয়ার বিপক্ষে। তাঁদের চোখে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ভিলেন হয়ে উঠেছেন। ঠিক সেইসময়েই বাবা ভাঙ্গার কথা আলোচনায় উঠে এল। জানা যাচ্ছে রাশিয়ার সাথে ইউক্রেনের এই যুদ্ধের কথাও তিনি নাকি আগাম বলে গিয়েছিলেন।


এর আগে আমেরিকার ওয়র্ল্ড ট্রেড সেন্টার নিয়ে তিনি ভবিষ্যদ্বাণী করেছিলেন। বলেছিলেন, ‘আমেরিকার বুকে ছিটকে পড়বে ধাতব এক পাখি। বহুতল ইমারত ধ্বংস হয়ে যাবে।’ এই বাণী অক্ষরে অক্ষরে মিলে গিয়েছিল। ওয়র্ল্ড ট্রেড সেন্টারে আত্মঘাতী বিস্ফোরক বিমান আছড়ে পড়ায়, যা ৯/১১ বলে চিহ্নিত করা হয়।


সম্প্রতি রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিনের জীবনী রচয়িতা সিদোরভ জানালেন , ১৯৭৯ সালে বাবা ভাঙ্গার সাথে তিনি সাক্ষাৎ করেছিলেন। সেসময়ে তিনি সিদোরভকে বলেছিলেন, ‘সবকিছু গলে জল হয়ে যাবে। শুধু রাশিয়া এবং রাষ্ট্রপতি পুতিনের গৌরব টিঁকে থাকবে। রাশিয়াকে কেউ রুখতে পারবেনা। বিশ্বের অধীশ্বর হয়ে দেখা দেবেন পুতিন।’


বাবা ভাঙ্গার ভবিষ্যদ্বাণী মিথ্যে হয়না। আজপর্যন্ত যা বলেছেন সবই মিলে গিয়েছে, এমনই বিশ্বাস চালু রয়েছে। তবে কি পুতিন অপ্রতিরোধ্য! আগামী বিশ্বের একচ্ছত্র অধিপতিই হয়ে উঠবেন? দেখার জন্য বিশ্বাসী এবং সংশয়ী, দুইপক্ষই সময়ের অপেক্ষায়।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com