pro (7)

সম্প্রতি আল্লু অর্জুনের ছবি ‘পুষ্পা রাজ’-এর ডায়ালগ, নাচের ভঙ্গি প্রভূত আলোড়ন তুলেছে। সেই থুতনিতে ছুরির ভঙ্গিতে আঙুল চালিয়ে বলা “পুষ্পা! পুষ্পারাজ! ম্যয় ঝুঁকেগা নেহি সালা!” এবার তারই প্রতিফলন ঘটল মাধ্যমিক পরীক্ষার খাতায়।

নেটমাধ্যমে একটি উত্তরপত্রের ছবি ভাইরাল হয়েছে। যদিও এই ছবি সংবাদ মাধ্যম দ্বারা যাচাইকৃত নয়। ওই ছবিটি তুলে ধরে জানানো হয়েছে সাদা খাতা জমা দিয়েছে এক পরীক্ষার্থী। ফ্রন্ট পেজে আল্লু অর্জুনের সংলাপের কায়দায় বড় বড় করে লেখা –“পুষ্পা! পুষ্পারাজ! আপুন লিখেগা নেহি সালা!” এই খাতা দেখে শিক্ষকরা হতবাক বনে গিয়েছেন।


টানা দুবছর পর স্কুল খোলার পর মাধ্যমিক পরীক্ষা। আর সেইসব পরীক্ষার খাতা চেক করতে গিয়ে আলাদাই অভিজ্ঞতার সম্মুখীন হতে হচ্ছে পরীক্ষক ও শিক্ষক শিক্ষিকাদের। এই দুবছরে অফলাইন ক্লাস বন্ধ থাকায় গোটা শিক্ষা ব্যবস্থাটাই যে ‘অফ্’ হয়ে গিয়েছিল সেটা অনেকাংশেই সত্যি বলে মেনে নিচ্ছেন কেউ কেউ। অনলাইনে ক্লাস, পরীক্ষা ইত্যাদি চললেও এই পদ্ধতির সাথে যে ছাত্রছাত্রীরা একাত্ম হতে পারেনি বরং শিক্ষা থেকে আরো বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছে তার একাধিক প্রমাণ মিলছে পরীক্ষার খাতায়।

পরীক্ষকরা জানাচ্ছেন, অনেক পরীক্ষার্থীই সাদা খাতা জমা দিয়েছে। কেউ কেউ আবার উত্তর লিখতে না পেরে, প্রশ্নপত্রটিকেই হুবহু কপি করে লিখে দিয়েছে খাতায়! আর তার মধ্যেই নেটমাধ্যমে ছড়ালো এই চমকে দেওয়া ঘোষণার উত্তরপত্র। “…আপুন লিখেগা নেহি সালা!” হাসিমজার উদ্রেক করলেও শিক্ষাব্যবস্থার ক্ষেত্রে এই ছবিটি এক নির্মম সত্যির দিকেই ইঙ্গিত করছে। পরীক্ষা ব্যাপারটাকেই ছেলেখেলা মনে করছে নাকি ছাত্রছাত্রীদের একাংশ? প্যানডেমিক পরবর্তী এই সময়ে প্রশ্নটা জোরালো হয়ে দেখা দিচ্ছে।

By Partha Roy Chowdhury (কিঞ্জল রায়চৌধুরী)

Partha Roy Chowdhury (Bengali: কিঞ্জল রায়চৌধুরী) is staff journalist VoiceBharat News. email: kinjol@voicebharat.com